• ঢাকা
  • শনিবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ০২ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

গোলাপের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৫৬ পিএম
আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা
আওয়ামী লীগ নেতা গোলাপ ও তাহমিনা

নিউজ ডেস্ক:  মাদারীপুর-৩ (কালকিনি, ডাসার ও সদরের একাংশ) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আবদুস সোবহান ওরফে গোলাপের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশের নেতা-কর্মীরা। সোবহানের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও মহিলা সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য তাহমিনা বেগম।

আবদুস সোবহান আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনাবিষয়ক সম্পাদক। তাকে মনোনয়ন দেওয়ায় গত রোববার রাত আটটার দিকে প্রতিবাদ জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করে কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা–কর্মীদের একাংশ। এতে তাহমিনা বেগম নিজেই নেতৃত্ব দেন। পরে দলীয় কার্যালয়ে জড়ো হয়ে সমাবেশ করেন নেতা-কর্মীরা।

এ সময় বক্তব্য দেন তাহমিনা বেগম, কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুজ্জামান শাহীন, সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মীর মামুনুর রশীদ, ডাসার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক সৈয়দ শাখাওয়াত হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক কাজী মাহমুদুল হাসান, কালকিনি পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আশ্রাব আলী ব্যাপারী, সাধারণ সম্পাদক এনায়েত হোসেন হাওলাদার প্রমুখ।

এ সময় নিজেকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দিয়ে তাহমিনা বেগম বলেন, অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে এ বয়সে আমার নির্বাচনে আসতে হবে, এটা আমার জন্য কষ্টের।...অন্যায়কারী, শোষণকারী, দুর্নীতিবাজ, চাঁদাবাজ গোলাপকে আমরা চাই না। বর্তমান নৌকার মাঝি দুর্নীতিবাজ। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে কলঙ্কিত করেছেন।

মাদারীপুর-৩ আসনে নির্বাচন করার জন্য সাতজন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন। তবে সে তালিকায় তাহমিনা বেগমের নাম ছিল না। এখন কেন নির্বাচনে দাঁড়ানোর কথা বলছেন জানতে চাইলে তাহমিনা মুঠোফোনে বলেন, তিনি দলের বাইরে গিয়ে নির্বাচন করবেন না, প্রার্থী বিরুদ্ধে গিয়ে করবেন। অযোগ্য লোক নৌকা পাওয়ায় এর প্রতিবাদ স্বরূপ নির্বাচন করবেন। আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের সব নেতা-কর্মীকে সঙ্গে নিয়ে তিনি নির্বাচন করবেন।

রোববারের সভায় তৌফিকুজ্জামান শাহীন বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতে গিয়ে নেতা–কর্মীদের ওপর যদি অন্যায়-অবিচার করা হয়, তাহলে কালকিনিতে সবকিছু বন্ধ করে দেওয়া হবে। কারণ, এই নির্বাচন হবে কালকিনিকে শুদ্ধ করার শেষ লড়াই।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘কালকিনিবাসী গোলাপের পরিবর্তে এমপি হিসেবে তাহমিনা আপাকে চায়। আমরা বেঁচে থাকতে দুর্গন্ধ গোলাপ আর চাষ করতে দেব না।’

মাদারীপুর-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান সংসদ সদস্য আবদুস সোবহানকে একাধিকবার কল করলেও তিনি ধরেননি।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

আরো পড়ুন

banner image
banner image