• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ২২ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

বিয়ের দাওয়াত খেয়ে দুই পক্ষের লোকজন অসুস্থ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ২০ জানুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০১:০২ পিএম
বিয়ের দাওয়াত খেয়ে দুই পক্ষের লোকজন অসুস্থ
বিয়ের দাওয়াত খেয়ে অসুস্থ

নাজমুল হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক : বিয়ের দাওয়াত খেয়ে লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর ও চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জের শিশু-নারীসহ অনেকে অসুস্থ হয়েছেন বলে জানা গেছে। তারা বর ও কনেপক্ষের লোকজন। দুই পক্ষের লোকদেরকে রায়পুর ও ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

গতকাল শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) রাত থেকে শনিবার ভোর পর্যন্ত পেটব্যথা ও বমি নিয়ে রোগীরা হাসপাতালে ভর্তি হোন। এর মধ্যে একজনকে লক্ষ্মীপুর সদরের ১০০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। অসুস্থদের মধ্যে ৩জন গর্ভবতী নারী এবং ৯জন শিশু রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর উপজেলার কেরোয়া ইউনিয়নের উত্তর কেরোয়া এলাকার বসু পাটোয়াটী বাড়ির সাইফুল ইসলামের পুত্র মো. নাদিম ও চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার চরদুখিয়া ইউনিয়নের চরমান্দারী এলাকার তফাদার বাড়ির মৃত তোফায়েল আহাম্মদের কন্যা তানিয়া আক্তারের বিয়ে হয়। কনের বাড়িতে আয়োজিত বিয়ের অনুষ্ঠানের খাবার খাওয়ার পর থেকে অসুস্থ হতে থাকে বরপক্ষের লোকজন।

গতকাল শুক্রবার রাত ৮টার দিকে লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, পেটে ব্যথা নিয়ে কয়েক জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। কেউ কেউ চিকিৎসা নিয়ে ফিরে যাচ্ছেন। হাসপাতালে ভর্তি হওয়াদের মধ্যে নারী ও শিশু এবং পুরুষ রয়েছেন।

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বাহারুল আলম বলেন, বিয়ে বাড়িতে দাওয়াত খেয়ে খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারণে বমি ও পেটব্যথা নিয়ে হাসপাতালে এখন পর্যন্ত অনেক রোগী এসেছিলেন। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে ভর্তি করা হয়। অন্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে ফিরে বাড়ি ফিরে যান।

মাইনুল ইসলাম বলেন, দাওয়াত খেয়ে আসার পর থেকে পেটব্যথা শুরু হয়। বিকাল ৫টার দিকে বাড়িতে ১৫-২০ জনের পাতলা পায়খানা ও বমি হতে থাকে। অবস্থা বেশি খারাপ হলে রাতেই এসে হাসপাতালে ভর্তি হই। প্রথমে ভেবেছিলাম, শুধু আমার পেটে সমস্যা হয়েছে। পরে জানতে পারলাম, ওই অনুষ্ঠানে যারা এসেছিল, প্রায় সবার একই অবস্থা।

বরের ভাই মো. মাসুম বলেন, দুই-একজনের সমস্যা হলে বিষয়টি স্বাভাবিক ছিল। যখন শুনলাম প্রায় সবারই এ সমস্যা হয়েছে, তখন বিষয়টি স্বাভাবিক মনে হচ্ছে না। তবে মেয়ে পক্ষের অনেক জন লোক অসুস্থ হয়েছে বলে শুনেছি।

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বাহারুল আলম বলেন, বিয়েবাড়িতে দাওয়াত খেয়ে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া সবাই খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারণে বমি ও পেটব্যথা নিয়ে হাসপাতালে এসেছেন। 

বিষয়টি তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টরসহ একজন স্বাস্থ্য সহকারীকে ওই বাড়িতে পাঠিয়ে বিষয়টি তদন্ত করছেন। হাসপাতালে ভর্তি হওয়া অনেকেরই অবস্থা বর্তমানে ভালো। কয়েকজনকে চিকিৎসা শেষে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি তারা গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখছেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image