• ঢাকা
  • সোমবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২৭ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

বঙ্গবন্ধুর বিজয় ছিল বাঙালির বিজয়: ডা.জালাল


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:১৬ পিএম
সভাপতিন্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা ড মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন
ড মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ

নিউজ ডেস্ক:  বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধু প্রশ্নে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন ও বিরোধী দলের নেতারা এক মঞ্চে বসে ১৯৭১ সালে মুক্তিদ্ধের স্মৃতিচারণ করেছেন। শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইন্সটিটিউট অডিটরিয়ামে পচাঁত্তরের প্রতিরোধ যোদ্ধা স্মৃতি সংসদ আয়োজিত হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে “বঙ্গবন্ধু সংগ্রামী রাজনীতির কবি ও মহাবিজয়ের মহাবিজয়ের মহানায়ক”শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, একাত্তরের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে বাংলাদেশের জন্ম ছিল বঙ্গবন্ধু ও বাঙালির বিজয়। প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতিন্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা ড মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন।

বক্তব্য রাখেন ভারতীয় তৃর্ণমুল কংগ্রেসের মুখপাত্র অরুপ চক্রবর্তী, জনতা পার্টির পশ্চিম বঙ্গের জনতা পার্টি ( বিজেপি) সহ আহ্বায়ক  ড পঙ্কজ  রায় ও দেবাশিষ চৌধুরী, পশ্চিমবঙ্গ কংগ্রেসের সহ সভাপতি দেব প্রশাদ রায়,  পচাঁত্তরের প্রতিরোধ যোদ্ধা স্মৃতি সংসদ বাংলাদেশের সভাপতি ফরিদা খানম সাকী এমপি, ভারতের কবি সুবোধ সরকার, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের  কথা সাহিত্যিক মৌমিতা ও অনুষ্ঠানের আয়োজক কানাডা প্রবাসী  সাহেদ রহমান  বক্তব্য রাখেন।

বক্তারা সবাই বাংলাদেশের জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামী জীবন বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে বাঙ্গালীর জয় বলে উল্লেখ করে বলেন এই জয় শুধু বাংলাদেশের জয়ই না যা দুই বাংলার মানুষের জয় বাঙ্গালীদের জয়। শুধু মাত্র একটি ভাষার মধ্য দিয়েই বাঙ্গালীর জয় হয়েছে। ভারতের মানুষের অনবদ্য সহযোগিতার কারনেই বাংলাদেশ আজ বিশ্বের বুকে মাথা উচু করে দাড়িয়েছে। 

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে  বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতিন্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা ড মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন বলেন ভারতের সহযোগীতার কারনেই আমরা দ্রুত স্বাধীনতা অর্জন করতে পেরেছি। বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে  ভারত বাংলাদেশের ১ কোটি শরনার্থী আশ্রয় দিয়ে মানবতার অমর দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে যা বিশ্বের ইতিহাসে বিরল। 

সভাপতির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপার্চায্য অধ্যাপক  আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা আজ বঙ্গবন্ধু প্রশ্নে এক মঞ্চে বসেছি কাটাতারের বেড়া অফিসিয়াল বাধা, যা ব্রিটিসরা করে দিয়ে গেছে এই বাধা আমাদের ভাষা, গান, কবিতা আলাদা করতে পারেনি। ভাষা যে সম্পর্ক তৈরি করে সে সম্পর্ক ভাঙ্গা যায় না। আসাম্রদায়িক চিন্তা চেতনার দিক দিয়ে আমরা দুই বাংলার মানুষ এক জায়গায়। ওপার বাংলার মানুষ বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কবিতা লিখেন আমরাও । তিনি আরো বলেন বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে বাঙ্গালী জাতিকে অন্ধকারের দিকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল এখন বঙ্গবন্ধু কণ্যা শেখ হাসিনার হাত ধরে আমরা আলোর পথে এগিয়ে যাচ্ছি। 

অনুষ্ঠান শেষে ভারত থেকে আগত অতিথির হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন
 

ঢাকানিউজ২৪.কম /

আরো পড়ুন

banner image
banner image