• ঢাকা
  • রবিবার, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ১৪ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদেরও জানাতে হবে মাদকের কুফল সম্পর্কে : ডিসি সুরাইয়া জাহান


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২০ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৫০ এএম
মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদেরও জানাতে হবে মাদকের কুফল সম্পর্কে
লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) সুরাইয়া জাহান

নাজমুল হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘মাদকের পরিবর্তে সন্তানকে বই ও খেলাধুলার দিকে মনোযোগী করার’ আহ্বান জানিয়েছেন লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) সুরাইয়া জাহান।

সোমবার (১৯ ফেব্রুয়ারী) লক্ষ্মীপুর ভবানীগঞ্জ কারামতিয়া ফাজিল মাদ্রাসার বার্ষিক ক্রীড়া ও সংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) সুরাইয়া জাহান বলেন, আমাদের দেশে মাদক একটি বড় সমস্যা। বাংলাদেশ সরকার মাদকের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’। মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরা ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি সরকারি কারিকুলাম অনুযায়ী ন্যাশনাল শিক্ষাও এগিয়ে। মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদেরও জানাতে হবে মাদকের কু-ফল সম্পর্কে। মাদকাসক্ত সন্তান যদি একটি পরিবারে থাকে, তাহলে সে পরিবার কতখানি বিপদে পড়ে শুধুমাত্র ওই পরিবারই তা জানে।

শিক্ষার্থীদের সবাইকে এ বিষয়ে সচেতন করা শিক্ষক ও অভিবাবকদের দায়িত্ব। তাই সন্তানদেরকে মাদকের পরিবর্তে বই ও খেলাধুলার সরঞ্জাম দিয়ে এবং কালচারাল বিভিন্ন অনুষ্ঠানের দিকে মনোযোগী করতে হবে। তবেই আমাদের সন্তানরা সুসন্তান হিসেবে গড়ে উঠেবে।

শিক্ষার্থীদের মোবাইল ফোন ব্যবহারে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক সুরাইয়া জাহান বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির এ যুগে মোবাইলে একটি ক্লিকের মাধ্যমে আমরা সারাবিশ্বকে জানতে পারি। এটির যথাযথ ব্যবহার না জানলে, ছোট ছোট শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন আসক্তিতে খারাপ হয়ে যেতে পারে।

শিক্ষক ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্য করে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) সুরাইয়া জাহান বলেন, ৬ষ্ঠ ও ৭ম এবং ৮ম শ্রেণি থেকে শিক্ষার্থীরা যখন বড় হয়ে উঠে, তাদের মোবাইল ফোন ব্যবহারের দিকে শিক্ষক ও অভিভাবকদের অবশ্যই সচেতন হতে হবে। যাতে তারা কোন আসক্তিতে জড়িয়ে না পারে।

স্মার্ট শিক্ষা ব্যবস্থায় মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরাও এগিয়ে উল্লেখ্য করে লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক (ডিসি) সুরাইয়া  জাহান বলেন, মাদ্রাসা থেকেও দাখিল ও আলিম এবং ফাজিল পড়ে প্রতিবছর বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে চান্স পাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। কারণ মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরাও শারীরীক, মানসিক বিকাশের জন্য এক্সট্রা কারিকুলাম একটিভিটিজ সাধারণ শিক্ষা ব্যবস্থার সাথে সমান তালে এগিয়ে যাচ্ছে। এটি খুবই প্রসংশনীয়।

২০৪১ সালে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হবে। সেই অবদানের অংশিদার হবে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীরাও। বর্তমানে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশে রয়েছি, স্মার্ট বাংলাদের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

সকলকে সাথে নিয়ে আমরা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়বো।
লক্ষ্মীপুর সদরের ভবানীগঞ্জ কারামতিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মো. ইব্রাহিম শামীম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পিয়াংকা দত্ত, লক্ষ্মীপুর জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আক্তার হোসেন শাহিন ও ১৭ নং ভবানীগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাইফুল হাসান রনি প্রমূখ।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিরতণ করেন অতিথিবৃন্দ। 

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image