• ঢাকা
  • শনিবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২০ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শুরু নয়াদিল্লিতে 


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ০২ মার্চ, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:১৪ পিএম
নয়াদিল্লিতে 
পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শুরু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে জি-টুয়েন্টি শীর্ষ সম্মেলন সামনে রেখে শুরু হয়েছে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক। বৃহস্পতিবার (০২ মার্চ) সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে বৈঠকে যোগ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রাশিয়াসহ জোটের সদস্যভুক্ত দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা।

বৈঠকের শুরুতেই ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় ভেদাভেদ ভুলে বিশ্বনেতাদের এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান জোটের সভাপতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ ছাড়া আলোচনায় সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য মূল সম্মেলনের এজেন্ডা নির্ধারণের পাশাপাশি প্রাধান্য পায় রাশিয়া-ইউক্রেন ইস্যু।

আগামী সেপ্টেম্বরে জি-টুয়েন্টি শীর্ষ সম্মেলনের আগে প্রস্তুতি সেরে নিতে নয়াদিল্লিতে জোটের সদস্যরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এক হয়েছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের এ বৈঠকে যোগ দিতে বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল থেকেই সম্মেলনস্থলে আসতে শুরু করেন বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা। বৈঠকে যোগ দেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন, রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ, চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিন গ্যাং, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেমস ক্লেভারলিসহ অন্যান্য জোটের  পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা।

বৈঠকের শুরুতেই ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে জি-টুয়েন্টি পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের উদ্দেশে ভাষণ দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ সময় বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় ভেদাভেদ ভুলে বিশ্বনেতাদের এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

একইসঙ্গে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধে কূটনৈতিক সমাধানের ওপরও গুরুত্বারোপ করেন তিনি। যদিও যুদ্ধের জন্য রাশিয়াকে দায়ী করে কোনো বক্তব্য দেননি জোটের বর্তমান সভাপতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের এ বৈঠকে আসন্ন শীর্ষ সম্মেলনের এজেন্ডা নির্ধারণের পাশাপাশি স্বভাবতই প্রাধান্য পায় রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। মোদির কথায় সুর মিলিয়ে সংঘাত পরিহার করে আলোচনার মাধ্যমে সংকটের শান্তিপূর্ণ সমাধানের ওপর গুরুত্বারোপ করে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীও। এ ছাড়া আলোচনা হয় জলবায়ু ইস্যুতেও। আর এই দুই বিষয়ই মূল সম্মেলনের এজেন্ডায় প্রাধান্য পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, রাশিয়া-ইউক্রেন ইস্যুতে জোটভুক্ত বিভিন্ন রাষ্ট্রের মধ্যে মতবিরোধের মধ্যেই এবারের সম্মেলনকে সফল করাই ভারতের সবচেয়ে বড় কূটনৈতিক পরীক্ষা। শুধু তাই নয়, বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় সবাইকে এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানানো ভারত, রাশিয়া-ইউক্রেন ইস্যুতে নিজেদের কৌশলগত নিরপেক্ষ অবস্থান ধরে রেখে কীভাবে জোটকে এগিয়ে নেবে, সেটিই এখন দেখার বিষয়।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image