• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২৩ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

ভারতে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ১৭ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৯:০০ এএম
নির্বাচন
প্রতীকী নির্বাচন

নিউজ ডেস্ক:  আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা হওয়ার সাথে সাথেই দেশজুড়ে আদর্শ আচরণবিধি কার্যকর হয়েছে। ভারতের নির্বাচন কমিশন কর্তৃক নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করার পর, বুন্দেলখণ্ডের মাহোবায় জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশ সুপার একটি সংবাদ সম্মেলন করেন এবং নির্বাচনী কর্মসূচির রূপরেখা দেন। তিনি জেলায় সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা বলেন এবং ভোটের সময় ভোটারদের দেওয়া সুবিধার কথাও বলেন। শুধু তাই নয়, নগরীতে লাগানো প্রচারণার হোর্ডিং অপসারণের কাজও করা হয়েছে।

 ইউপিতে সাত দফায় লোকসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। 19 এপ্রিল থেকে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু হবে এবং 1 জুন পর্যন্ত বিভিন্ন আসনে ভোটগ্রহণ চলবে। ভোট গণনা হবে ৪ জুন।

 নির্বাচন কমিশন সাত ধাপে অনুষ্ঠিতব্য আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে। 20 মে পঞ্চম দফায় হামিরপুর মহোবা লোকসভা আসনে ভোট হবে, এই বিষয়ে জেলা নির্বাচন অফিসার মৃদুল চৌধুরী সাংবাদিক সম্মেলন করে ভোটের কর্মসূচির রূপরেখা দিয়েছেন। লোকসভা নির্বাচনের জন্য জেলায় 489টি ভোট কেন্দ্র এবং 735টি ভোট কেন্দ্র তৈরি করা হয়েছে। যেখানে মোট ৬৭৫৯১৮ জন ভোটার তাদের ভোট দেবেন। যার মধ্যে পুরুষ ভোটার 363358, মহিলা ভোটার 312540 এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার 20 জন।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ডিএম বলেন, সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ নির্বাচন করতে জেলা প্রশাসন বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন ৮৫ বছরের বেশি বয়সী এবং প্রতিবন্ধী ভোটারদের জন্য পোস্টাল ব্যালটের সুবিধাও দিয়েছে। এ ধরনের ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে আসতে না পারলে প্রশাসন তাদের বাড়িতে গিয়ে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করবে। 

 সোশ্যাল মিডিয়া বা অন্য কোথাও কারও উপর ব্যক্তিগত আক্রমণ এড়াতে ডিএম রাজনৈতিক দলগুলিকেও আবেদন করেছিলেন। একে অপরের ওপর ব্যক্তিগত আক্রমণ না করার এবং নির্বাচন কমিশনের নির্ধারিত বিধি-বিধান অনুযায়ী নির্বাচনে অংশগ্রহণের আবেদন জানানো হয়। ডিএম বলেন, নির্বাচনে নতুন ভোটার যুক্ত হয়েছে, জেলায় 12134 জন নতুন ভোটার করা হয়েছে যারা তাদের ভোট দেবেন।গণতন্ত্রের এই উদযাপনে সবাই যাতে অংশগ্রহণ করে সে জন্য নির্বাচন কমিশন চেষ্টা করবে।

এসপি অপর্ণা গুপ্তা সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, নির্বাচনের সময় যাতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার থাকে সেজন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এসপি অপরাধমূলক কার্যকলাপ এবং নৈরাজ্যমূলক উপাদানের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের সতর্ক করে দিয়েছিলেন যে তারা কোনও ধরণের গুজব ছড়াবেন না এবং আইন লঙ্ঘন করে এমন কিছু করবেন না। তিনি নির্ভয়ে ভোট দিতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান এবং নিরাপত্তার আশ্বাস দেন। তিনি আরও বলেছিলেন যে তদন্তের জন্য রাজ্য এবং জেলা সীমান্তে অবরোধ থাকবে এবং প্রতিটি ইতিহাস-পত্রক এবং অপরাধ প্রবণতাযুক্ত ব্যক্তিদের নজরদারি করা হবে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / এসডি

আরো পড়ুন

banner image
banner image