• ঢাকা
  • শনিবার, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২২ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি গণহত্যা বন্ধের দাবিতে উদীচীর সমাবেশ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ০২ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০১:৪৭ পিএম
ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি
গণহত্যা বন্ধের দাবিতে উদীচীর সমাবেশ

নিউজ ডেস্ক : ফিলিস্তিনের গাজা ও রাফাসহ বিভিন্ন স্থানে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর নৃশংস গণহত্যা ও মানবতাবিরোধী অপরাধের প্রতিবাদ এবং স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের স্বীকৃতির দাবিতে দেশব্যাপী প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী। 

কেন্দ্রীয়ভাবে ০১ জুন (শনিবার) বিকাল সাড়ে ৫টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের বিপরীতে অনুষ্ঠিত হয় সমাবেশ। উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি অধ্যাপক বদিউর রহমান-এর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উদীচীর সহ-সভাপতি জামসেদ আনোয়ার তপন, সাধারণ সম্পাদক অমিত রঞ্জন দে, কোষাধ্যক্ষ বিমল মজুমদার, ঢাকা মহানগর সংসদের সাধারণ সম্পাদক আরিফ নূর, ডক্টরস ফর হেলথ এন্ড এনভায়রনমেন্ট-এর সদস্য ডা. শাকিল আক্তার, বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক আকমল হোসেন এবং আদিবাসী যুব পরিষদের সভাপতি হরেন্দ্রনাথ সিং। 

সমাবেশে বক্তারা বলেন, সাম্রাজ্যবাদী অপশক্তি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যক্ষ মদদে কয়েক দশক আগে ফিলিস্তিনের ভূমি দখল করে গড়ে ওঠা ইসরায়েল রাষ্ট্রটির কোন বৈধতা নেই। বিশ্বের বেশিরভাগ দেশই ইসরায়েলকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি। তারপরও মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ এবং এর দোসরদের সহযোগিতায় ইসরায়েল সব আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করে ফিলিস্তিনের বেশিরভাগ ভূমি নিজেদের করায়ত্ত করেছে। ফিলিস্তিনের জনগণের উপর বহুবার নৃশংস হামলা চালিয়েছে। 

বক্তারা আরো বলেন, ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী জনগণের উপর ইসরায়েল গাজা উপত্যকায় যে মানবতাবিরোধী অপরাধ চালাচ্ছে তার প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছে বিশ্বের সব শান্তিকামী মানুষ। সব বড় শহর এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে চলছে তুমুল বিক্ষোভ। ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিচ্ছে নতুন নতুন দেশ। এরপরও মূলত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পৃষ্ঠপোষকতা এবং সরাসরি অর্থ ও অস্ত্র সহায়তায় গাজায় ও রাফায় গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে ইসরায়েল। হাসপাতাল কিংবা শরণার্থী শিবিরও তাদের হামলার থেকে রেহাই পায়নি। গত বছর অক্টোবরের শুরুর দিকে গাজা উপত্যকায় যে নির্বিচার বিমান ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা এবং স্থল অভিযান শুরু করে ইসরায়েল, তা অতীতের সকল নৃশংসতার রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। তাদের হামলায় এরই মধ্যে মারা গেছে নারী-শিশুসহ প্রায় অর্ধলক্ষ নিরীহ বেসামরিক ফিলিস্তিনি। প্রাণ বাঁচাতে ও শুশ্রুষার জন্য হাসপাতালে আশ্রয় নেয়া মানুষের উপর বিমান হামলা চালিয়ে মানুষ হত্যা করতেও পিছপা হয়নি অবৈধ রাষ্ট্রটি। 

সমাবেশে উদীচীর নেতারা বলেন, প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই বিশ্বশান্তির পক্ষে কথা বলে আসছে উদীচী। স্বাধীনতাকামী মানুষের ন্যায়সঙ্গত সংগ্রাম এবং সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া অন্যতম কর্তব্য মনে করে উদীচী। তাই, ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি দখল এবং গণহত্যা অবিলম্বে বন্ধের দাবিতে প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ করে উদীচী। একইসাথে বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল শান্তিকামী রাষ্ট্রকে এর বিরুদ্ধে সোচ্চার ভূমিকা রাখার আহ্বান জানাচ্ছে উদীচী। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে অকুণ্ঠ সমর্থন দিয়েছে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র এবং এর জনগণ। তাই, ফিলিস্তিনের বিপদে রাষ্ট্র হিসেবে বাংলাদেশেরও উচিত তাদের পাশে দাঁড়িয়ে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ফোরামে ফিলিস্তিনের পক্ষে জনমত গড়ে তুলতে সচেষ্ট হওয়া। এ বিষয়ে দ্রুত কার্যকর কূটনৈতিক পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি দাবিও জানান বক্তারা। 

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image