• ঢাকা
  • বুধবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২৯ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

মিঠামইনের আলপনা বৈশাখে হাওরের সৌন্দর্যকে বৃদ্ধি করেছে


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:৩১ পিএম
মিঠামইনের আলপনা এই বৈশাখে সৌন্দর্যকে বৃদ্ধি করেছে
ডাক টেলিযোগাযোগ তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক

মিঠামইন (কিশোরগঞ্জ): গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ডাক টেলিযোগাযোগ তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এম,পি বলেছেন, কিশোরগঞ্জের হাওরে সাবেক রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ সাহেবের নিরলস চেষ্টার ফসল হিসাবে এ ৩৫ কি.মি. অলওয়েদার সড়ক।এ সড়ক হাওরের সৌন্দর্যকে বৃদ্ধি করেছে। দেশি বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করেছে। যোগাযোগ ব্যাবস্থার উন্নতি হয়েছে। 

দিন দিন পর্যটকদের সংখ্যা ক্রমশ:বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে মিঠামইন জিরো পয়েন্ট থেকে অষ্টগ্রাম জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত ১৪ কি.মি. রাস্তা এ পহেলা বৈশাখে আলপনায় রাঙ্গিয়ে আরও সৌন্দর্য করে তুলেছে।

এ রাস্তা আলপনায় বিশ্ব রেকর্ড সৃষ্টি করেছে বলে,তিনি মনে করেন।তিনি এ দীর্ঘ আলপনার সহযোগিতায় বাংলালিংক ও বার্জার পেইন্ডএর কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান। তিনি এ সমন্বিত উদ্যোগের প্রশংসা করে বলেন,কোভিড-১৯ এর বিরতির পর পহেলা বৈশাখের আলপনা লর উৎসব আবার ফিরে আসায় বাঙালি চেতনার উৎযাপন আবার তার চেনা রুপ লাভ করেছে।তিনি আয়োজকদের প্রতি শুভকামনা জানান।আশাবাদ ব্যক্ত  করছেন যেনো তারা এমন আয়োজন করে দেশবাসীকে আনন্দে ভাসাতে পারে।পরে  রবিবার সকালে  মন্ত্রী মিঠামইন জিরো পয়েন্ট থেকে মোটরসাইকেল চালিয়ে কিশোরগঞ্জ ৪- আসনের এম,পি রেজওয়ান আহমদ তৌফিক কে নিয়ে চার কিলোমিটার রাস্তার আলপনা কাজ পরিদর্শন করেন। পাশাপাশি চারুকলা বিভাগের ৪শত চিএ শিল্পী ও স্হানীয় কারুকার্য শ্রমিকদের ধন্যবাদ জানান। এসময় কিশোরগঞ্জ ৪- আসনের এম,পি রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এড,জিল্লুর রহমান, মিঠামইন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ এরশাদ মিয়া, সহকারী পুলিশ সুপার সামুয়েল সাংমা,মিঠামইন সদর ইউ,পি চেয়ারম্যান এড, শরীফ কামাল, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সমীর কুমার বৈষ্ণব সহ বাংলালিংক ও বার্জার পেইন্ট এর কর্মকর্তা বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

বাংলালিংক এর চীফ করপোরেট এন্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান তার উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সহ সকল উৎসব উৎযাপনে দায়বদ্ধ। দেশের সবচেয়ে বড় উৎসব পহেলা বৈশাখ। এ সকল উৎসবের মাঝে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। বাংলালিংক এর এ আয়োজন ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের সাংস্কৃতি ও দেশীয় উৎসবকে তুলে ধরার একটি প্রয়াস। 
বার্জার পেইন্ট বাংলাদেশ লিমিটেড এর এমডি,রুপালী চৌধুরী বলেন, আলপনার বিশ্ব রেকর্ড গড়াতে আমাদের অংশ গ্রহণ নিজেদের সার্থক কে চ্যালেন্জ জানানের মাধ্যমে ইতিহাস তৈরিতে আমাদের উৎসর্গকে প্রকাশ করে।আমরা এমন রঙ্গিনও স্বরণীয় বৈশাখ পালন করতে আশা বাদি।

এশিয়াটিক থ্রি-সিক্সটি এর গ্রুপ এমডি ইরেশ জাকের আলপনায় বৈশাখ উৎসবের আনন্দ প্রকাশ করে বলেন,দেশ ব্যাপী বৈশাখের এই আয়োজন গুলো বাঙালী সংস্কৃতি ও সৃষ্টিশীলতার বহি:প্রকাশ। বাংলালিংক ও বার্জারের সাথে যৌথভাবে আলপনার বৈশাখ ১৪৩১ আয়োজন করতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।কারণ এশিয়াটিক বাংলাদেশের সাংস্কৃতিও সৃষ্টিশীলতাকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে প্রতিঙ্গা বদ্ধ। 

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image