• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২০ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

অন্ধ্রপ্রদেশের উপমুখ্যমন্ত্রীর পদ চাইতে পারেন পবন


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১১ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০২:০৯ পিএম
অন্ধ্রপ্রদেশের
পবন কল্যাণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের বিধানসভা নির্বাচনে অন্ধ্রপ্রদেশে তেলেগু দেশম পার্টির (টিডিপি) সঙ্গে জোট বেধে ক্ষমতায় ফিরেছে বিজেপি। ভোটের আগে বিজেপি ও টিডিপির মধ্যে জোট গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন জনসেনা পার্টির (জেএনপি) প্রধান ও জনপ্রিয় অভিনেতা পবন কল্যাণ। নির্বাচনে ২১টি আসনে লড়াই করে সবগুলোতেই জয়ী হয়েছে পবন কল্যাণের দল। দলীয় সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে, সুযোগ কাজে লাগিয়ে অন্ধ্রের উপমুখ্যমন্ত্রীর পদ চাইতে পারেন পবন।

মঙ্গলবার (১১ জুন) জনসেনার বিধায়করা এক বৈঠকে পবন কল্যাণকে অন্ধ্রপ্রদেশ বিধানসভায় দলীয় নেতা হিসেবে নির্বাচিত করেছেন। সূত্র জানিয়েছে, বৈঠকে আসন্ন অন্ধ্রপ্রদেশের মন্ত্রিসভায় মুখ্যমন্ত্রীসহ পাঁচটি মন্ত্রণালয় চাইবে জনসেনা।
 
ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদন মতে, অন্ধ্রপ্রদেশে এবারের মন্ত্রিসভায় আসন ভাগাভাগিতে টিডিপি ২০টি, জনসেনা উপমুখ্যমন্ত্রীসহ তিনটি এবং বিজেপি দুটি মন্ত্রণালয় পেতে পারে। যদিও মুখ্যমন্ত্রীর শপথ গ্রহণের পরই সবকিছু স্পষ্ট হবে।

ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, বুধবার (১২ জুন) অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার কথা রয়েছে টিডিপি সভাপতি চন্দ্রবাবু নাইডুর। শপথ অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিরও উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।
 
গত ১৩ মে অন্ধ্রপ্রদেশের ২৫টি লোকসভা আসনের সঙ্গে ১৭৫টি বিধানসভায় এক দফায় ভোট হয়েছিল। সেখানে জগনমোহন রেড্ডির দল ওয়াইএসআরসিপিকে হারাতে বিজেপি এবং জেএনপির সঙ্গে জোট করেছিল চন্দ্রবাবু নাইডুর টিডিপি।
 
অন্ধ্রপ্রদেশের লোকসভা নির্বাচনে চন্দ্রবাবুর দল পেয়েছে ১৬টি আসন। জোটসঙ্গী বিজেপি এবং জনসেনার দখলে যথাক্রমে তিনটি এবং দুটি করে আসন। অন্যদিকে, জগনের দল মাত্র চারটি আসনে জিতেছে। বিধানসভা নির্বাচনেও ভরাডুবি হয়েছে ওয়াইএসআরসিপির।

বিধানসভায় টিডিপি পেয়েছে ১৩৫টি আসন। বিজেপি ৮টি, জেএনপি পেয়েছে ২১টি আসন। অন্যদিকে, ওয়াইএসআরসিপি ১১টি আসন পেয়েছে। যদিও ২০১৯ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ওয়াইএসআরসিপি একাই পেয়েছিল ১৫১টি আসন।
 
১৭ জুন থেকে বিধায়কদের শপথ গ্রহণের মাধ্যমে অন্ধ্রপ্রদেশের অধিবেশন শুরু হবে। এর একদিন পর স্পিকার নির্বাচন করার কথা রয়েছে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image