• ঢাকা
  • রবিবার, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ১৪ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

আটোয়ারীতে গণহত্যা দিবস পালিত


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ২৫ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০২:০৭ পিএম
আটোয়ারীতে
গণহত্যা দিবস পালিত

আটোয়ারী (পঞ্চগড়) প্রতিনিধি : পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় ২৫ মার্চ, গণহত্যা দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে সোমবার ( ২৫ মার্চ) রচনা প্রতিযোগিতা,কবিতা আবৃত্তি, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ, বিশেষ মোনাজাত, বধ্যভূমিতে মোমবাতি প্রজ্জলন ও ‘ব্ল্যাক আউট’ কর্মসুচি ছিল অন্যতম। 

এ উপলক্ষে সোমবার বেলা ১১ টায় উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শাফিউল মাজলুবিন রহমান। দিবসটির ওপর গুরুত্বারোপ করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ তৌহিদুল ইসলাম প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। 

অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক আলহাজ¦ মোঃ রমজান আলী’র সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোস্তাক আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মোঃ নজরুল ইসলাম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার লুৎফুল কবির মোঃ কামরুল হাসান, অতিরিক্ত কৃষি কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপজেলা ফিল্ড সুপারভাইজার মোঃ তোফাজ্জল হোসেন প্রমুখ। 

বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে বাঙালি জাতির জীবনে এক বিভীষিকাময় রাত নেমে আসে। মধ্যরাতে বর্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী অত্যাধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে তাদের পূর্ব পরিকল্পিত অপারেশন সার্চলাইটের নীল নকশা অনুযায়ী আন্দোলনরত বাঙালিদের কন্ঠ চিরতরে স্তব্ধ করে দেওয়ার ঘৃণ্য লক্ষ্যে রাজধানী ঢাকা সহ সারাদেশে নিরস্ত্র মানুষের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। ২৫ মার্চের গণহত্যা শুধু এক রাতের হত্যাকান্ডই ছিল না, এটা ছিল মূলত বিশ্ব সভ্যতার জন্য এক কলঙ্কজনক জঘন্যতম গণহত্যার সূচনা মাত্র। সেনা অভিযানের শুরুতেই হানাদার বাহিনী বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে তার ধানমন্ডির বাসভবন থেকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের আগে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষনা করেন এবং শেষ শত্রু বিদায় না হওয়া পর্যন্ত যুদ্ধ চালিয়ে যাবার আহবান জানান। বঙ্গবন্ধুর এই আহবানে সাড়া দিয়ে বাঙালি জাতি পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধে ঝাাঁপিয়ে পড়ে এবং দীর্ঘ নয়মাস রক্তক্ষয়ী সশস্ত্র লড়াই শেষে একাত্তরের ১৬ ডিসেম্বর পূর্ণ বিজয় অর্জন করে। বিশ্বের মানচিত্রে অভ্যুদয় ঘটে নতুন রাষ্ট্র বাংলাদেশের। 

বক্তারা আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে ও ঘোষনায় মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয়, আমরা জয়লাভ করি। বর্তমান প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাস চর্চায় উৎসাহিত করতে হবে। আলোচনা শেষে প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।
 

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image