• ঢাকা
  • বুধবার, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৯ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

তানোরে গাছের সঙ্গে এ কেমন শত্রুতা


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ১২ আগষ্ট, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০১:৩৭ পিএম
তানোরে গাছের সঙ্গে এ কেমন শত্রুতা
আম গাছ

তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি : রাজশাহী তানোরে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে চাষ করা এক কৃষকের প্রায় শতাধিক আম গাছ রাতের আধারে কেটে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন ওই কৃষক ও তার পরিবার।

বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) দিনগত রাতে উপজেলার বাঁধাইড় ইউনিয়নের ধামধুম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্থ ওই কৃষকের নাম নোমান আলী। এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ ওই কৃষক মুন্ডুমালা পুলিশ ফাঁড়িতে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।  

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বাঁধাইড় ইউনিয়নের ধামধুম এলাকায় কয়েক বছর আগে পতিত প্রায় ৩০ বিধা জমি টেন্ডার নিয়ে বাণিজ্যিকভাবে আম ও পেয়ারা গাছের চারা রোপণ করেছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরের বাসিন্দা কৃষক নোমান আলী। এরপর থেকে ধামধুম এলাকার স্থানীয় কিছু ব্যক্তি বেশি টাকায় জমিগুলো টেন্ডার নেওয়ার অজুহাত দেখিয়ে কৃষক নোমানের সঙ্গে বিবাদে জড়ায়। 

সম্প্রতি রাতের আধাঁরে আম গাছ কেটে ফেলার সময় স্থানীয় কয়েকজন যুবকদের হাতেনাতে ধরা পড়ে। তবে সেই সময়ে মীমাংসার কথা বলে বাগানে আটক থাকা যুবকদের জোর করে ছাড়িয়ে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। ওই সময়ে এ ঘটনায় স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগও করেন ভুক্তভোগী ওই কৃষক।
আগের ওই ঘটনার সমাধান না হতেই গত ১০ আগস্ট বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে আবারও ওই বাগানের প্রায় শতাধিক আম গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা।

কৃষক নোমান আলী জানান, দূর থেকে এসে জমি টেন্ডার নিয়ে বাগান তৈরি করায় তার সঙ্গে স্থানীয় কয়েকজনের বিরোধ চলে আসছে। মাঝে মধ্যে তারা তাকে প্রাণনাশ ও আর্থিকভাবে ক্ষতি করার হুমকি দিত। ভুক্তভোগী কৃষক আরও বলেন, ধামধুম এলাকায় প্রায় ৩০ বিঘা জমির ওপর রোপণ করা বাগানে প্রায় ৪ হাজার আমগাছ লাগানো হয়েছে। তবে গত এক মাস আগে ২২০টি এবং গত বৃহস্পতিবার রাতে আরও ১০০টির অধিক আম কাছ কেটে ফেলে তাঁর প্রায় ৭ লাখ টাকার ক্ষতি করা হয়েছে। এ ঘটনার দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তিনি। 

মুন্ডুমালা পুলিশ ফাঁড়ির ইনর্চাজ মনিরুল ইসলাম জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image