• ঢাকা
  • রবিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২১ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

বেইলি রোডের অগ্নিকান্ডে নিহত ৪৪, লাফিয়ে আহত অনেকে


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ০১ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৭:৫৫ এএম
আগুন
বেইলি রোডের কাচ্চি হাউজের আগুন

সুমন দত্ত: মাসের শেষ দিন বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকার বেইলি রোডের সাততলা গ্রিন কোজি কটেজ শপিং মলে অগ্নিকাণ্ডে ২৬ নারী ও তিন শিশুসহ ৪৪ জন নিহত এবং ২২ জন গুরুতর আহত হয়েছেন।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সামন্ত লাল সেন জানান, নিহতদের মধ্যে ৩৩ জন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং ১০ জন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে মারা গেছেন।

এদিকে রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে আরেকজনকে মৃত অবস্থায় আনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন। ভবন থেকে অজ্ঞান অবস্থায় ৪২ জনসহ প্রায় ৭৫ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাইন উদ্দিন জানান, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দুই ঘণ্টার চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ভবনের প্রায় প্রতিটি তলায় রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডার ছিল। তিনি বলেন, চুলা বা গ্যাসের ট্যাঙ্ক থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে। তিনি আরো বলেন, ধোঁয়ায় শ্বাসরোধে অনেকের মৃত্যু হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের আরেক শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, ভবনটিতে মাত্র দুটি লিফট এবং একটি সিঁড়ি ছিল যার কোনো জরুরি প্রস্থান এবং অন্যান্য নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমস্যা ছিল না। আগুন ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে লোকেরা এমনকি তৃতীয় তলার জানালা থেকে লাফিয়ে পড়ে এবং অনেককে ষষ্ঠ তলায় এবং ছাদে সাহায্যের জন্য কান্নাকাটি করতে দেখা যায়।

 আগুন লাগার কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস। পুলিশের মহাপরিদর্শক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন ঢামেক হাসপাতালে সাংবাদিকদের বলেন, পুলিশ যত দ্রুত সম্ভব মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তরের চেষ্টা করবে। 

শুক্রবার ভোর রাত ২টা ১৯ মিনিটের দিকে সিআইডি ভবনের চারপাশে ক্রাইম সিন টেপ লাগিয়ে দেয়।

ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন এবং তাদের ঢামেক হাসপাতালে আনা হয়েছে।

আহতরা হলেন- ইমরান (১৩), শাকিল (২৪), উজ্জল (২৩), জোবায়ের (২১), ওমর ফারুক (৪৩), শাকিল (২২), জুয়েল (৩০), সেজান (২২), দ্বীন ইসলাম (৩০) ও ইকবাল হোসেন (২৪)।

গ্রীন কোজি কটেজ শপিং মলে দোকান এবং খাবারের দোকান যেমন একটি কাচ্চি ভাই, একটি স্যামসাং শোরুম, গ্যাজেট এবং গিয়ার, ইলিয়াইন, খানস এবং পিজ্জা ইন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / এসডি

আরো পড়ুন

banner image
banner image