• ঢাকা
  • শনিবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৩ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

গণফোরাম ও গণতন্ত্র মঞ্চ সংলাপে রাজনৈতিক সংকট নিরসনেঐক্যমত


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ০১ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১:১৪ পিএম
সরকার আইনের ফাঁক-ফোকর গলিয়ে বিচার বিভাগ
গণফোরাম ও গণতন্ত্র মঞ্চ সংলাপ

নিউজ ডেস্ক:  ১ নভেম্বর মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় গণফোরাম কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চলমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে গণফোরাম ও গণতন্ত্র মঞ্চের সংলাপ ও প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।

গণফোরাম সভাপতি মোস্তফা মোহসীন মন্টু বলেন- আমাদের আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে। আমরা দেখেছি বিনা ভোটে সরকার গঠিত হয়েছে, ২০১৮ সনে আরেকবার রাতের অন্ধকারে সাধারণ মানুষের সম্পৃক্ততা ছাড়া ভোট চুরির মাধ্যমে সরকার গঠিত হয়েছে। দুইটা নির্বাচন প্রমাণ করেছে এই সরকারের অধীনে কোন সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব না, যে কারণে আমরা এই বিষয়ে সম্পূর্ণভাবে একমত হয়েছি। সরকার আইনের ফাঁক-ফোকর গলিয়ে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ধ্বংস করেছে, প্রশাসনকে জনগণের স্বার্থে ব্যবহার না করে এই অবৈধ সরকার নিজের ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে ব্যবহার করছে। গণতন্ত্রের উত্তরণের পথে বাধা হিসাবে যে সমস্যাগুলি মোটা দাগে চলে আসে সেগুলো চিহ্নিত করে সকল গণতন্ত্রকামী রাজনৈতিক দলের সাথে আলাপ আলোচনার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে । জনগণের বিএনপি সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সভা সমাবেশ ও কর্মসূচি বন্ধ করতে বিরোধী মতের নেতাকর্মীদের উপর হামলা-মামলা, দমন-পীড়ন চলছে আমরা এই অপকর্মের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

গণতন্ত্র মঞ্চের অন্যতম নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন- সামগ্রীকভাবে প্রশাসন ব্যবস্থা, বিচার ব্যবস্থা, মানুষের অধিকার সমূহ ও জনগণের গণতান্ত্রিক অধীকার যার জন্য সংবিধানে স্বৈরতান্ত্রিক হওয়ার যে সুযোগ রয়েছে তা পরিবর্তন, অনেকাংশে জন স্বার্থে সংবিধান পরিবর্তন সহ সবকিছু মিলিয়ে রাষ্ট্র ব্যবস্থার একটি সংস্কার বিবেচনা আমাদের চিন্তায় আছে। যার ভিত্তিতে আমরা নীতিগতভাবে গণতন্ত্র মঞ্চ ও গণফোরাম ঐক্যমত হয়েছি গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠায় একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের ব্যবস্থা করা। সেই লক্ষ্যে আরও বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলার প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

প্রেস ব্রিফিং এ আরও বক্তব্য রাখেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক, গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী ও গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জেএসডি’র কার্যকরী সাধারণ সম্পাদক শহিদ উদ্দীন মাহমুদ স্বপন, রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক অ্যাডভোকেট হাসনাত কাইয়ুম, গণ অধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর, ভাসানী অনুসারী পরিষদের সদস্য সচিব হাবিবুর রহমান রিজু।

সংলাপে উপস্থিত ছিলেন গণফোরাম সভাপতি নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট এ.কে.এম. জগলুল হায়দার আফ্রিক, সভাপতি পরিষদ সদস্য মেজর (অব.) আসাদুজ্জামান বীর প্রতীক, আতাউর রহমান, আবদুল হাসিব চৌধুরী, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লতিফুল বারী হামিম, রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মীর্জা হাসান, তথ্য ও গণমাধ্যম সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ মধু, মোঃ নাসির হোসেন, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক তাজুল ইসলাম, মহিলা সম্পাদক নিলুফার আহাম্মেদ শাপলা, ছাত্র সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোঃ সানজিদ রহমান শুভ।

সংলাপে গণতন্ত্র মঞ্চের প্রতিনিধি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জেএসডি’র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, নাগরিক ঐক্যের সাংগঠনিক সম্পাদক সাকিব আনোয়ার, গণঅধিকার পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান ও ফারুক হাসান, ভাষানি অনুসারি পরিষদের কার্যকরী সদস্য মোঃ মহিববুল্লা বাহার।

ঢাকানিউজ২৪.কম /

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image