• ঢাকা
  • শনিবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২০ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

একুশে গ্রন্থমেলায় কুমার অরবিন্দের ‘রক্তমাখা ভাত’ ও ‘ভূতের সেলফি’


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ২২ ফেরুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০২:২৪ পিএম
অমর একুশে গ্রন্থমেলা

মো: সাইফুল আলম, ঢাকা:  বই প্রেমিকদের উৎসব মুখর একটি স্থান হল একুশে বইমেলা। অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রতিবছরই নতুন-পুরাতন লেখকদের সেতুবন্ধন দেখা যায় এবং শত শত নতুন বই প্রকাশ হয়। এই বছর অমর একুশে গ্রন্থমেলায় যতগুলো বই বের হয়েছে তারমধ্যে অন্যরকম নজর কেড়েছে কুমার অরবিন্দের ‘রক্তমাখা ভাত’ ও ‘ভূতের সেলফি’ এই দুটি বই।

বইদুটির প্রকাশক এএসএম ইউনুছ বলেন, ‘রক্তমাখা ভাত’  গল্পগ্রন্থের গল্পগুলো এই সময়ের, এই সমাজেরই বিম্বিত রূপ ধারণ করেছে। গল্পকার কুমার অরবিন্দ মানুষকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করেন। সমাজ-মন্থনে তিনি গল্প তুলে আনেন। এবং প্রাঞ্জল ভাষায় যথোচিত শব্দ-সহযোগে চরিত্রের অবয়ব দান করেন। ফলে তাঁর গল্পের চরিত্রগুলো জীবন্ত হয়ে ওঠে। এর আগেও এই গল্পকারের ‘অসমাপ্ত বিকেল’ ও ‘বাবা এবং অন্যান্য গল্প’ নামে দুটি গল্পগ্রন্থ আমি প্রকাশ করি। কুমার অরবিন্দ এই সময়ের প্রতিশ্রুতিশীল লেখকদের একজন। ‘রক্তমাখা ভাত’ গল্পের বইটি নিয়ে লেখক কুমার অরবিন্দ বলেন, প্রত্যেক মানুষের জীবনই অসংখ্য গল্পের সমষ্টি। জীবন ছেঁকে গল্প তুলে আনাই একজন গল্পকারের কাজ। আমি এই কঠিন কাজটি করার চেষ্টা করেছি মাত্র। 

বইটির নাম ‘রক্তমাখা ভাত’ কেন? এ সম্পর্কে লেখক বলেন, নানা কারণে শুধু আমরা নই পুরো পৃথিবী একটা অস্থির সময় অতিবাহিত করছে। সেই অস্থিরতা আছড়ে পড়েছে আমাদের মতো সাধারণ মানুষের মধ্যেও। ফলে মানুষের জীবন-জীবিকা, মন-মানসিকতা, আঁচার-ব্যবহারে পরিবর্তন এসেছে। চেনা মানুষগুলো অচেনা হতে শুরু করেছে। প্রাত্যহিক জীবনে লেগেছে পরিবর্তনের ছোঁয়া। সম্পর্কের পালাবদলের সঙ্গে সঙ্গে সাদা ভাতও কখনো কখনো রক্তাক্ত হয়ে ওঠে। 

মধ্যরাতের মেয়ে, রক্তমাখা ভাত, কারবারি, একটি রাত এবং..., ভাস্কর, মরণবীজ, না-পাগল না-মানুষ, নির্জন দুপুরের অসমাপ্ত পাণ্ডুলিপি-সহ মোট বারটি গল্প রয়েছে। লেখক জানিয়েছেন, বাস্তবতা ও কল্পনার সংমিশ্রণে গল্পগুলোর অবয়ব গঠিত হয়েছে। গল্পগুলো পাঠক পছন্দ করবেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন। 

‘ভূতের সেলফি’ কিশোর উপন্যাসটি নিয়ে লেখক কুমার অরবিন্দ জানান, এটি ভূত বিষয়ক উপন্যাস হলেও এটিতে ভয়ের কিছু নাই। আছে মজা ও বিজ্ঞান। স্কুল পড়ুয়া তিন বন্ধুকে নিয়ে ‘ভূতের সেলফি’ উপন্যাসটি আবর্তিত হয়েছে। তারা চায় একটা ভূত ধরে পুষতে। এ কাজে তাদের সাহায্য করতে চায় তাদের বুয়েটে পড়া এক মামা। ভূত ধরতে পারলে ভূতটা তাদের হোম ওয়ার্ক করে দেবে, ফুটবল খেলায় গোলকিপার হয়ে গোল আটকাবে, ইংরেজি মিসকে তেলাপোকা হয়ে ভয় দেখাবে। কিন্তু মামাই কিনা শেষে প্রমাণ করতে চেষ্টা করে ভূত বলে কিছু নাই! অথচ একদিন সেই মামাকে অজ্ঞান অবস্থায় রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। তার মোবাইলে পাওয়া যায় অদ্ভুত কিছু সেলফি। সেগুলো নিশ্চয়ই ভূতের সেলফি! 

বইটির প্রকাশক এএসএম ইউনুছ বলেন, স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য দারুণ একটা বই। মজার ব্যাপার হচ্ছে, ভূতের উপন্যাস হলেও মোটেও এটি গা শিউরে ওঠা ভয়ের গল্প নয় বরং আনন্দের। নিশ্চয়ই বইটি খুদে পাঠকেরা পছন্দ করবে। অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২৩-এ বইদুটি পাওয়া যাবে ইন্তামিন প্রকাশন-এ। মেলায় স্টল নম্বর: ২৫৯-২৬০-২৬১-এ। 

পুরো মেলা জুড়ে দারুন সারা ফেলেছে বই দুটি। অমর একুশে গ্রন্থমেলায় কথাসাহিত্যিক ও নাট্যকার কুমার অরবিন্দের সম্পূর্ণ নতুন গল্পগ্রন্থ ‘রক্তমাখা ভাত’ ও কিশোর উপন্যাস ‘ভূতের সেলফি’ । বইদুটি প্রকাশ করছে ইন্তামিন প্রকাশন। 

লেখকের প্রকাশিত অন্যান্য উপন্যাস: ভাগের জীবন (ইন্তামিন প্রকাশন), বেকারবেলার বিরহ (ইন্তামিন প্রকাশন)। প্রকাশিত অন্যান্য গল্পগ্রন্থ: সে রাতে চাঁদ ছিল না (কালি কলম প্রকাশন), অসমাপ্ত বিকেল (ইন্তামিন প্রকাশন), বাবা এবং অন্যান্য গল্প (ইন্তামিন প্রকাশন) । প্রচারিত টেলিভিশন নাটক: সমাধান (এনটিভি), তালাকনামা (বৈশাখী টিভি), প্রতীক্ষায় পূর্ণতা (টেলিফিল্ম, এটিএন বাংলা), রং (চ্যানেল নাইন), বউ হবে প্রতিবেশী ( চ্যানেল নাইন), নির্মাতা ও নাটক (ধারাবাহিক, চ্যানেল নাইন)।  

ঢাকানিউজ২৪.কম /

আরো পড়ুন

banner image
banner image