• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৮ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে নানা কর্মসুচি


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ১৫ মার্চ, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৮:৪১ পিএম
১৭ মার্চ, জন্মদিন
স্বাধীন বাংলার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুৃজিবুর রহমান

নিউজ ডিস্ক : ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন জনগোষ্ঠী যখনই কোনা না কোন ভয়াবহ বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছে ঠিক তখনই মহাপুরুষের আবির্ভাব ঘটেছে। তিনিই আবার সংকটময় পরিস্থিতি উত্তীর্ণ করে বিপর্যস্ত জনমানুষকে মহামুক্তির পথ দেখিয়েছে। স্বাধীন বাংলাদেশের ইতিহাসের তেমনি এক মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেক মুজিবুর রহমান।

আজকের এই স্বাধীন বাংলাদেশ একসময় ব্রিটিশ ও পাকিস্তানের আধা ঔপনিবেশিক দখলদারদের দ্বারা শোষিত ও শাসিত হয়েছিল। বিশেষ করে এই ভূখন্ড ধর্মরাষ্ট্র পাকিস্তানের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হিসেবে ২৩ বছর ধরে শাসিত হয়েছিল। স্বাধীন হয়েও পূর্ব বাংলার বাঙালিরা পরাধিনতার দাসত্বে আবদ্ধ ছিল। ঠিক তখনই কালের আলোর দিশারী হয়ে জন্মে ছিলেন শেখ মুজিবুর রহমান। এরপর তার নেতৃত্বে দীর্ঘ নয় মাসের মুক্তিযুদ্ধের পাঠচুকে হয়ে উঠেন স্বাধীন বাংলার স্থপতি। সেই আলোর দিশারীর ১০৩ তম জন্মদিন আগামী ১৭ মার্চ বৃহস্পতিবার। শুভ জন্মদিন,বঙ্গবন্ধু। এই দিনে তুমি এসেছিলে বলেই এসেছে স্বাধীনতা।

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে নানা কর্মসুচি

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০৩ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসের বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন তারা।

শুক্রবার সকালে রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিতে টুঙ্গিপাড়া যাবেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী।

এ উপলক্ষ্যে ইতোমধ্যে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ কমপ্লেক্স পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও শোভাবর্ধন এবং জাতীয় শিশু সমাবেশ ও তিন দিনব্যাপী বইমেলা আয়োজনের সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। তাদের আগমনকে নির্বিঘ্ন করতে টুঙ্গিপাড়াসহ জেলায় নেওয়া হয়েছে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষে মহাসড়কসহ বিভিন্ন সড়কে বঙ্গবন্ধু, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সংবলিত শতাধিক তোরণ, ডিজিটাল পোস্টার ও ব্যানার টাঙিয়ে স্বাগত জানানো হয়েছে।

ওইদিন সকালে প্রথমে প্রধানমন্ত্রী ও পরে রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সে পৌঁছাবেন। সেখানে রাষ্ট্রপতিকে অভ্যর্থনা জানাবেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর প্রথমে রাষ্ট্রপতি ও পরে প্রধানমন্ত্রী সমাধিসৌধ বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাতে অংশ নেবেন।

এ সময় সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করবে। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে রাষ্ট্রপতি ঢাকার উদ্দেশে টুঙ্গিপাড়া ছেড়ে যাবেন।

রাষ্ট্রপতিকে বিদায় জানানোর পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবসের বিভিন্ন অনুষ্ঠানসহ নানা কর্মসূচিতে অংশ নেবেন।

সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন এবং মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজিত জাতীয় শিশু সমাবেশে যোগ দেবেন।বেলা ১১টায় প্রধানমন্ত্রী সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার প্রদান, অস্বচ্ছল মেধাবী শিশু শিক্ষার্থীদের মধ্যে আর্থিক অনুদান বিতরণ করবেন। এরপর প্রধানমন্ত্রী জাতীয় শিশু সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ দেবেন। তিনি শিশু শিল্পীদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও উপভোগ করবেন।

দুপুর ১২টা ৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শিশু শিল্পীদের সঙ্গে ফটোসেশনে অংশ নেবেন এবং দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতার সমাধি প্রাঙ্গণে আয়োজিত বইমেলার উদ্বোধন ও স্টল পরিদর্শন করবেন। রাষ্ট্রীয় কর্মসূচি শেষে প্রধানমন্ত্রী টুঙ্গিপাড়া থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করবেন।

 

 

ঢাকানিউজ২৪.কম / এম আর

আরো পড়ুন

banner image
banner image