• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২৪ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

বই‌ মেলায় মুগ্ধতা আর বিদ্রোহের কাব্যগ্রন্থ বিমূর্ত সময়’


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ১৩ ফেরুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৭:১৩ পিএম
বিমূর্ত সময়’
কাব্যগ্রন্থ বিমূর্ত সময়’ প্রচ্ছদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

যাপিত জীবনের অন্তক্ষরণ, মোহ, মুগ্ধতা,বিস্ময়,বিদ্রোহ নিয়েই কাব্যগ্রন্থ বিমূর্ত সময়’ এবারের অমর একুশে বই‌মেলায় প্রকাশিত হয়েছে।

বইটির প্রচ্ছদ করেছেন মিনতি রায়। প্রকাশ করেছে দেশ পাবলিকেশন্স।

বই‌টির লেখক সাংবাদিক মোরশেদুল আমিন শাহিন বলেন, প্রমিথিউসের মত প্রতিদিন ভাঙতে ভাঙতে নতুন করে শুরু। চূড়ান্ত ভাবে ভেঙ্গে চুরে যাবার পরেও জীবন আবার উঠে দাঁড়ায় । দীর্ঘ খরা তাপদাহেও সজনে লতা নুয়ে পড়ে না । অতল বেদনা ও ভয়ানক বীভৎসতার অভিজ্ঞতা থেকেও আবার ঘুরে দাঁড়াতে পারি। অসংখ্য প্রতিকূলতা আর বিপর্যয়ের পাশে সতর্কতার দেয়াল তুলে ভালোবাসার অকুণ্ঠ প্রেরণা নিয়ে আবার উঠে দাঁড়াই।  

তিনি আরো বলেন, জীবনের মানে নতুন করে গড়তে শিখি। প্রজাপতির মত সব অন্ধকার গিলে খেয়ে নতুন রঙের আবির ছড়িয়ে আলোকিত করি। অন্ধকার কে ঢেকে দিয়ে নতুন আলোয় প্রভাত নিয়ে আসি। এমনসব যাতনার কিছু পঙক্তি জীবন থেকে তুলে এনে জমিয়েছিলাম। যাপিত জীবনের অন্তক্ষরণ, মোহ, মুগ্ধতা,বিস্ময়,বিদ্রোহ নিয়েই এই কাব্যগ্রন্থ।

গ্রন্থমেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশের দেশ পাবলিকেশন্স এর ৪১৭-৪১৯ নাম্বার স্টলে পাওয়া যাচ্ছে ‘বিমূর্ত সময়’ বইটি । এর দাম রাখা হচ্ছে ৫০০ টাকা।

তেরশ চুয়াত্তর সনে একুশে ফাল্গুনে, পবিত্র মঙ্গল বারে ল্ভিনু শাহিনে, প্রথম অতিথী রত সপিল খোদায়, দীর্ঘজিবি সর্বগুনী গর্ভে যেন তায় এই লাইন কয়টা  মোরশেদুল আমিন শাহিন জন্মের সংবাদ উপহার পেয়েছিলো পরিবার থেকে। ইংরেজি হিসেবে আমার জন্ম ১৯৬৮ সনের ৪ মার্চ। বরিশালের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। লেখালেখি স্কুল জীবন থেকে। বিবিসি, ভয়েস অফ অ্যামেরিকা, ডয়চে ভেলে , আরো সব বিদেশী রেডিও ক্লাবে চিঠি লেখাই তার প্রথম লেখালেখি। বরিশাল শহরে এসে কলেজে ভর্তি হওয়ার পর থেকে ১৯৮৫ থেকে ১৯৯০ সময় কাল দৈনিক দক্ষিণাঞ্চলে নিয়মিত কাজের সময় লেখালেখি শুরু করলেও সেই সব লেখা একদম হারিয়ে ফেলেন তিনি। অনলাইন ব্লগ আর ফেইসবুকের জন্যে নতুন করে কিছু লেখা শুরু করি ২০১৪-২০১৫ সাল থেকে। সেখান থেকে কিছু কবিতা প্রকাশের জন্য এই কাব্যগ্রন্থে প্রকাশ করা হয়েছে।

লেখক মোরশেদুল আমিন শাহিন ‘বিমূর্ত সময়’ বইটি তার মা ও একমাত্র মেয়েকে উৎসর্গ করেন। তিনি বলেন, আমার সংশয়-দ্বিধার অন্ধকারে আলোকবর্তিকা জ্বলে যার ডাক শুনে। একটু একটু করে সে বড়ো হতে হতে দুঃখ পাওয়া শিখেছে! আমি বুঝতে পারি তার দুঃখ পাওয়া মুখ দেখে। আরও বড় হতে হতে বড় দুঃখ দেখার সময় হয়তো আমি অন্য যাত্রায় থাকবো। মেয়ে ঐশী। এবং মলিনলাবণ্য স্নিগ্ধ জ্যোৎস্নার মমতায় ব্রহ্মকমল ফুটিয়েছেন জিনি আমার জীবনে বড় বড় দুঃখ গুলোকে জয় করে এখন সে  বার্ধক্যে আমার আম্মা। দুই মাকে উৎর্সগ করলাম।

ঢাকানিউজ২৪.কম / এম আর

আরো পড়ুন

banner image
banner image