• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ০১ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

গাজা দখল করা হবে 'বড় ভুল': বাইডেন


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০২:৩৯ পিএম
আমেরকিা
আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন

নিউজ ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইসরাইল সফরের কথা বিবেচনা করেছেন। রোববার তিনি গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের দীর্ঘমেয়াদী দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে সতর্কবাণী উচ্চারণ করেন।

সিবিএস নিউজের "৬০ মিনিটস" এর সাথে একটি সাক্ষাতকারে, বাইডেন জোর দিয়ে বলেন, ইসরায়েল যুদ্ধের নিয়ম অনুসারে কাজ করবে এবং নিরীহ বেসামরিকদের ওষুধ, খাবার এবং জলের প্রবেশাধিকার থাকবে। তিনি আরও বলেন,  তিনি বিশ্বাস করেন  ইসরায়েল দীর্ঘমেয়াদে ওই অঞ্চল নিয়ন্ত্রণ  ঠিক হবে না। তার পরিবর্তে অঞ্চলটিতে "ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ" দ্বারা শাসিত হওয়া উচিত।

টিভি সাক্ষাৎকারে জো বাইডেন বলেছেন, তার দল গাজার বাসিন্দাদের জন্য একটি নিরাপদ অঞ্চল প্রতিষ্ঠার বিষয়ে আলোচনা করছে।  মিশরীয় সরকারের সাথে এ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে যাতে সংঘাত পূর্ণ এলাকা থেকে নারী ও শিশুদের সরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে তাদের সহায়তা পাওয়া যায়। 

বাইডেন বলেন, নিরপরাধ বেসামরিক নাগরিকদের হত্যা এড়াতে ইসরায়েলিরা প্রয়োজনে সবকিছু করবে । বাইডেন জোর দিয়েছেন হামাসের প্রাথমিক আক্রমণের পরে ইসরায়েলকে জবাব দিতে হবে।

তিনি বলেন, আমি মনে করি এটি একটি বড় ভুল হবে, যদি ইসরায়েল ওখানে দীর্ঘ দিন ধরে অবস্থান করে। তিনি বলেন, "দেখুন, আমি মনে করি গাজায় যা ঘটেছে তা হামাস করেছে। হামাস সমস্ত ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতিনিধিত্ব করে না।" রোববার রাতে ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনী গাজায় স্থল আক্রমণের প্রস্তুতি নিচ্ছিল এবং কয়েক হাজার বাসিন্দাকে দক্ষিণ দিকে পালাতে বাধ্য করার সময় এই সাক্ষাৎকারটি প্রচারিত হয়। যার কারণে বড় আকারের অভিবাসন মানবিক সংকটের সৃষ্টি করেছে। ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা বলেছেন, গাজায় ২৬০০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে।

জো বাইডেন এবং ইসরায়েলি নেতারা সর্বশেষ সেপ্টেম্বরে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের বৈঠকের সময় দেখা করেছিল। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্টনি ব্লিঙ্কেন সৌদি ও মিশরীয় নেতাদের সাথে বৈঠকের পর সোমবার ইসরায়েলে ফিরে আসবেন বলে আশা করা হচ্ছে। 

এদিকে মিশরের রাষ্ট্রপতি আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসিও বাইডেনকে সংঘর্ষের বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন করবেন তাতে তাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

ফিলিস্তিনি ও ইসরায়েলি নেতারা মিশরকে এই সংঘর্ষে মধ্যস্থতা করার জন্য চাপ দিচ্ছেন। যুক্তরাষ্ট্র রাফাহ সীমান্ত ক্রসিং খুলে দেওয়ার জন্য দেশটিকে চাপ দিয়েছে। হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভানও রোববার বলেছেন,  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের নেতাদের সাথে ক্রমবর্ধমান সংলাপ চালিয়ে যাচ্ছে যাতে এই উত্তেজনা আর না বাড়ে। 

ঢাকানিউজ২৪.কম / এসডি

আরো পড়ুন

banner image
banner image