• ঢাকা
  • বুধবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ২১ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

হাতীবান্ধায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর গাড়ী বহরে হামলা ও ভাংচুর


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১২:২৮ পিএম
হাতীবান্ধায় গাড়ী বহরে হামলা ও ভাংচুর
স্বতন্ত্র প্রার্থী

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটে আ’লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সোনালী ব্যাংকের সাবেক ব‌্যবস্থাপনা পরিচালক আতাউর রহমান প্রধানের গাড়ী বহরে হামলা, গাড়ী ও অফিস ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার রাতে জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার গড্ডিমারী মেডিকেল মোড় এলাকায় গণসংযোগ করতে গেলে তার গাড়ী বহরে হামলা চালায় ইউ-পি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল ও তার লোকজন। এ সময় গাড়ী ও অফিস ভাংচুর করা হয় এমন অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের ।

 তবে স্থানীয় আওয়ামীলীগের দাবী, স্বতন্ত্র প্রার্থী গণসংযোগের নামে নৌকার বিরুদ্ধে কথা বললে স্থানীয় লোকজনের বাঁধার মুখে পড়ে ।

লালমনিরহাট-১ (হাতীবান্ধা-পাটগ্রাম) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী, আওয়ামীলীরে অর্থ ও পরিকল্পনা উপ-কমিটির সদস‌্য, সোনালী ব্যাংকের সাবেক ব‌্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিও আতাউর রহমানের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট, হাতীবান্ধা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি সরওয়ার হায়াত খান জানান, ওই এলাকায় নির্বাচনী গণসংযোগে গেলে গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামলসহ আওয়ামীলীগ, যুব ও ছাত্রলীগের কতিপয় নেতা-কর্মী তাদের পথ রোধ করে গণসংযোগে বাঁধা দেয়। এ সময় স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহামান প্রধান ও তার সফরসঙ্গীদের উপর হামলাসহ গাড়ী ও অফিস ভাংচুর করা হয়।

হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মশিউর রহমান এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমান প্রধান গণসংযোগ বাঁধা, গাড়ী ও অফিস ভাংচুরসহ হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের প্রস্তুতি চলছে।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ প্রার্থীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল। তার দাবী, স্বতন্ত্র প্রার্থী গণসংযোগের নামে নৌকার বিরুদ্ধে কথা বললে স্থানীয় লোকজনের বাঁধার মুখে পড়ে। ভাংচুরের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

হাতীবান্ধা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

লালমনিরহাট রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ উল‌্যাহ জানান, বিষয়টি তিনি জেনেছেন। কেউ যদি নির্বাচনী প্রচারণায় বাঁধা দেয় তার বিরুদ্ধে অবশ‌্যই তদন্ত করে আইনী ব‌্যবস্থা নেয়া হবে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image