• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৮ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

পাবনা ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন মেডিকেলে পড়ালেখার দ্বায়িত্ব নিলেন রাস্ট্রপতি


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৭ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০১:০৪ পিএম
পাবনা, ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন মেডিকেল, পড়ালেখা, দ্বায়িত্ব, রাস্ট্রপতি

নিউজ ডেস্ক: পাবনার বেড়ার দিনমজুরের পুত্র বেড়া আলহেরা একাডেমি স্কুল এন্ড কলেজের মেধাবী ছাত্র আসিফুর রহমান চলতি বছর মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজে লেখাপড়ার সুযোগ পেয়েছে। এতে দিনমজুর পিতা বাছেদ মোল্লা সন্তানের ভর্তির খরচ ও লেখাপড়া চালানো নিয়ে রীতিমতো চিন্তিত হয়ে পড়েছিলেন। দিন এনে দিন খাওয়া পরিবারটির সংসার চলানোই  যেখানে ত্রাহী অবস্থা সেখানে ছেলেকে কিভাবে ডাক্তার বানাবেন এ চিন্তার মধ্যে প্রথমে পাশে দাঁড়ায় "বেড়া শিক্ষার্থী সহযোগিতা সংগঠন" নামে একটি ছাত্র সংগঠন । তারা আসিকুরকে  নিয়ে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারও দৈনিক প্রথম আলো আসিফুরের উপর প্রতিবেদন প্রকাশ করেন।

মানবিক আবেদন ও প্রতিবেদনটি "পাবনা ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশ" এর সাধারণ সম্পাদক সাবেক রেল সচিব ও মানবাধিকার কমিশনের সার্বক্ষনিক সদস্য সেলিম রেজার মাধ্যমে রাস্ট্রপতির দৃস্টি গোচর হয়। পরে পাবনা ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের আজীবন সভাপতি ও রাস্ট্রপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদ এ মেধাবীর পাশে দাড়ানো ঘোষণা দেন।

বেড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মোরশেদুল ইসলাম সোমবার দুপুরে পাবনা ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক সেলিম রেজা রাস্ট্রপতির  পক্ষে আসিকুরের পরিবারের কাছে এ আনন্দবার্তা পৌঁছে দিলে পরিবারটিতে বাঁধভাঙা আনন্দ দেখা দেয়। মোরশেদুল ইসলাম বলেন বেড়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে সবসময় সহযোগিতা করা হবে।

আসিফুরের পিতা  বাছেদ মোল্লা অশ্রুসিক্ত কন্ঠে জানান,তিনি তার ছেলেকে নিয়ে যখন চারিদিকে অন্ধকার দেখছিলেন। সেই সময় মহামান্য রাস্ট্রপতি তার সংগঠনের মাধ্যমে দ্বায়িত্ব নিয়েছেন এ অনুভূতি কিভাবে জানাই।সয়ং আল্লাহ তার সাহায্যের হাত দিয়ে ছেলেটির ভবিষ্যৎ রক্ষা করেছেন।এ জন্য তার পরিবার রাস্ট্রপতি ও পাবনা ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের কাছে চিরকৃতজ্ঞ থাকবেন।

আসিফুর তার অনুভূতি জানিয়েছে বলেন, মেডিকেল চান্স পাওয়ার পর ভর্তি ও অনাগত ভবিষ্যত নিয়ে সে চিন্তিত হয়ে পড়েছিলেন। বেড়া শিক্ষার্থী সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রথমে মেহরাব হোসেন জীম ভাই পাশে এসে আসস্ত করেন কিছু একটা করার জন্য। তার সহযোগিতায় বিভিন্ন ভাবে ভর্তির টাকাও সংগ্রহ হয়। বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: রাশিদুল ইসলাম প্রাথমিক ভাবে ভর্তির নগদ টাকা প্রদান করেন।আসিফুর রহমান তার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদক, বেড়া শিক্ষার্থী সংগঠন, পাবনা ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনের আজীবন সভাপতি রাস্ট্রপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদ ও পাবনা ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক সেলিম রেজার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন,একজন আদর্শ ডাক্তার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে সে দেশের মানুষের সেবা প্রদানের মাধ্যমে এ ঋণ পরিশোধের সংকল্পে অটল থাকবেন।
বেড়া আলহেরা একাডেমি স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ হাকিমুল কবির বলেন শিক্ষার্থী আসিফুর মেধার স্বাক্ষর রেখে বিদ্যালয়ের সুনাম রক্ষা করে যাচ্ছেন।তাকে নিয়ে তার প্রতিষ্ঠান গর্বিত।সেই সাথে এমন গরীব মেধাবীদের নিয়ে পাবনা ফাউন্ডেশন যে সহযোগিতা দিলেন সেটাও একটি শুভসূচনা ও  আশার জায়গা হিসেবে স্থান হয়ে থাকবে।তিনি তার উজ্জল ভবিষ্যৎ কামনা করেন।

উল্লেখ্য শিক্ষার্থী আসিফুর রহমান উপজেলা হাটুরিয়া নাকালিয়া ইউনিয়নের জগনাপুর গ্রামের দিনমজুর পিতার দুই ভাই এক বোনের মধ্যে সবার বড়ে।তার পিতা বাছেদ মোল্লা স্থানীয় বাজারের একটি সিমেন্টের দোকানের কুলি হিসেবে কাজ করেন। আসিকুর ছোট বেলা থেকেই মেধাবী পিএসসি পরীক্ষায় ট্যালেন্টপুল বৃত্তি জেএসসিতে সাধারণ গ্রেডে বৃত্তি এসএসসি ও এইচ এসসিতে জিপিএ -৫ নিয়ে উত্তীর্ণ হয়ে চলতি মেডিকেল ভর্তি পরিক্ষায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজে অধ্যায়নের সুযোগে করে নিয়েছেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image