• ঢাকা
  • বুধবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ২১ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

পাকিস্তানে চতুর্থ মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন নওয়াজ শরীফ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ০৮ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৩:১৯ পিএম
চতুর্থ মেয়াদে
পাকিস্তানে প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন নওয়াজ শরীফ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের উত্তপ্ত রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও অস্থিরতার মধ্যেই চলছে জাতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদ মিলিয়ে এবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৭ হাজারেরও বেশি প্রার্থী। এবারের নির্বাচনে প্রায় ১২ কোটি ৮০ লাখ ভোটার ভোট দিচ্ছেন। প্রার্থীদের মধ্যে মাত্র ৩১৩ জন নারী।

বৈশ্বিক নানা মিডিয়া ও থিংক-ট্যাংক বলছে, চতুর্থ মেয়াদে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন নওয়াজ শরীফ।

সংবাদমাধ্যম এপি জানায়, ‌পাকিস্তানে ফেরার পর আদালত কর্তৃক তার সাজা বাতিলের পর চতুর্থ মেয়াদে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য তার পথ পরিষ্কার রয়েছে।

সংবাদমাধ্যম বিবিসি, গার্ডিয়ান, এএফপিসহ আরো কিছু আন্তর্জাতিক মিডিয়াও ভবিষ্যদ্বাণী করেছে যে- তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ ২০২৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে চতুর্থবারের মতো দেশটির নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ফিরে আসবেন। বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের জাতীয় নির্বাচনের দিন দেশটির জিও নিউজের বিপোর্টে এমনটা বলা হয়েছে। 

পাকিস্তানের রাজনীতিতে নওয়াজ শরীফ এর আগে তিনবারই ক্ষমতাচ্যুত হয়েছিলেন। গত বছর ‘স্বেচ্ছা নির্বাসন’ থেকে ফিরে আসেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ও মামলাগুলো থেকে নিজেকে রেহাইয়ের সুযোগ পান। সর্বশেষ তিনি ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রিত্ব হারিয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর নওয়াজ শরীফকে বেশ কিছু চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হবে। বিশেষ করে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ক্ষুব্ধ সমর্থকদের মুখোমুখি হবেন তিনি। দেশটির জনপ্রিয় এই নেতা বর্তমানে আদিয়ালা কারাগারে বন্দী। সাইফার মামলায় ১০ বছরের কারাদণ্ড, তোশাখানা মামলায় ১৪ বছর এবং ‘অবৈধ’ বিয়েতে সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত তিনি।

ব্লুমবার্গের রিপোর্টে জানিয়েছে, গত সপ্তাহে করাচিতে পাকিস্তানের অভিজাত ব্যবসায়ী নেতাদের এক সমাবেশে অনেকেই বলেছেন, তারা একটি ঝুলন্ত সংসদের ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন যেখানে একটি দুর্বল জোট সরকার গঠন হতে পারে। তাদের বেশিরভাগই বলেছেন, এই জোট সরকারের নেতৃত্ব দেবেন নওয়াজ শরীফ কিংবা তার ভাই শেহবাজ শরীফ। শেহবাজও একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী। 

সিএনএনের রিপোর্ট জানায়, প্রচারের ক্ষেত্রে স্পষ্টভাবে এগিয়ে আছেন ইমরান খানের দীর্ঘদিনের প্রতিদ্বন্দ্বী নওয়াজ শরীফ। ৭৪ বছর বয়সী এই নেতার সঙ্গে প্রতিদ্বদ্বন্দ্বিতা হবে প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রীর প্রার্থী বিলাওয়াল ভুট্টোর সঙ্গেও। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- নওয়াজ শরীফ একজন অভিজ্ঞ এবং তিনি সবসময়ই যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখতে পারদর্শী। তিনি ভারতের সঙ্গেও সুসম্পর্ক চাইবেন। 

এপি রিপোর্ট বলছে, ইমরান খান কারাগারে থাকায় উল্টো দিকের মঞ্চ দেখা যাচ্ছে। যখন নওয়াজ শরীফ আইনি মামলায় লড়ছিলেন তখন ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। এখন ইমরান খান কারাগারে থাকায় বিশ্লেষকরা নওয়াজ শরীফের আরেকটি জয়ের ভবিষ্যদ্বাণী করছেন।

মার্কিন থিঙ্ক ট্যাঙ্ক ব্রুকিংস ইনস্টিটিউটের মতে, ভবিষ্যদ্বাণী হলো- নওয়াজ শরীফ ও তার দল পিএমএল-এনের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যদি পিটিআইয়ের (পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ) নির্দলীয়রা জয় তুলে নিতে পারে তবে সেটা একটি বিশাল আশ্চর্যের ব্যাপার হবে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image