• ঢাকা
  • বুধবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ; ২১ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

টেকনাফে মিয়ানমারে পাচারকালে বিপুল পরিমাণ খাদ্যদ্রব্য উদ্ধার, আটক-২


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৩ ফেরুয়ারী, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:০৮ পিএম
টেকনাফে মিয়ানমারে পাচারকালে বিপুল পরিমাণ খাদ্যদ্রব্য উদ্ধার, আটক-২
খাদ্যদ্রব্য উদ্ধার

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি : সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে সমুদ্রের বিভিন্ন চ্যানেল ব্যবহার করে অবৈধভাবে চোরাইপথে পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমারে ভোগ্যপণ্য পাচারকালে কক্সবাজারের টেকনাফের সদর ইউনিয়নের হাতিয়ারঘোনা এলাকা থেকে পাচার চক্রের দুইজন সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫। এসময় পাচারকালে ৪ হাজার ৪৭০ লিটার ভোজ্য তেল সয়াবিন, বিভিন্ন প্রকারের ১লক্ষ ৩৬ হাজার ৫৫০ পিস ঔষধ ও ৫শ কেজি ময়দা উদ্ধার করা হয়েছে। 

আটককৃত পাচারকারীরা হলেন,টেকনাফ উপজেলার সদর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড হাতিয়ার ঘোনা এলাকার আবুল বশরের ছেলে আব্দুল মন্নান (২৪) ও একই এলাকার মৃত হাছন আলীর ছেলে 
আলী হোসেন (৪৫)।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া) মোঃ আবু সালাম চৌধুরী গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারী) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে, সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে অন্য দেশে পাচারের উদ্দেশ্যে কতিপয় পাচারকারী ভোজ্য তেল সয়াবিন’সহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য নিয়ে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাতিয়ারঘোনা এলাকায় জনৈক আবুল বাশার হাজির মুরগির খামার সংলগ্ন ভিটা এলাকায় অবস্থান করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫, সিপিসি-১, টেকনাফ ক্যাম্পের চৌকস আভিযানিক দল উক্ত এলাকায় একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় র‌্যাবের আভিযানিক দলের উপস্থিতি বুঝতে পেরে কৌশলে পালানোর চেষ্টাকালে দুইজন পাচারকারীকে আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত পাচারকারীদের তাদের নাম-ঠিকানা প্রকাশ করে এবং পার্শ্ববর্তী দেশে পাচারের উদ্দেশ্যে ভোজ্যতেল সয়াবিন, ঔষধ এবং ময়দা মজুদ রাখে মর্মে স্বীকার করে। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে ১টি জীপ গাড়িসহ সর্বমোট ৮৯৫টি বোতলে ৪ হাজার ৪৭০ লিটার ভোজ্য তেল সয়াবিন, বিভিন্ন প্রকারের ১লক্ষ ৩৬ হাজার ৫৫০ পিস ঔষধ ও ১০টি বস্তায় মোট ৫শত কেজি ময়দা উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ১১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা।
জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা জানায়,তারা দীর্ঘদিন যাবৎ এই চোরাচালানের সাথে জড়িত। তারা পরস্পর-পরস্পরের সহযোগীতায় দেশের বিভিন্ন কোম্পানী থেকে পাইকারি দামে ভোজ্য তৈল, ঔষধ, ময়দা এবং নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী ক্রয় করে নিজেদের হেফাজতে মজুদ করতো। পরবর্তীতে আর্থিকভাবে অধিক লাভবান হওয়ার জন্য সমুদ্রের বিভিন্ন চ্যানেল ব্যবহার করে অবৈধভাবে চোরাইপথে এ দেশ হতে পার্শ্ববর্তী দেশে পাচার করতো বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়।  
ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তারা আরও জানায়, সাম্প্রতিক সময়ে পার্শ্ববর্তী দেশে যুদ্ধাবস্থার কারণে দেশটিতে তৈল, ঔষধ এবং খাদ্যদ্রব্যসহ বিভিন্ন পণ্যের ব্যাপক ঘাটতি এবং দ্রব্যমূল্যের প্রচন্ড উর্ধ্বগতি দেখা দেয়। এই উদ্ভুত পরিস্থিতিকে কাজে লাগিয়ে তৈলসহ বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য বাংলাদেশ থেকে কম মূল্যে ক্রয় করে উচ্চ দামে কক্সবাজার জেলার সমুদ্রের বিভিন্ন চ্যানেল ব্যবহার করে পার্শ্ববর্তী দেশে পাচার করে আসছিল। বিনিময়ে নগদ টাকার পাশাপাশি তারা ইয়াবাসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য বাংলাদেশে নিয়ে আসতো বলে জানায়। 

তিনি আরো জানান,আটককৃত চোরাকারবারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা জন্য কার্যক্রম  প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। 

উল্লেখ্য,সাম্প্রতিক সময়ে কক্সবাজার জেলার সমুদ্রের বিভিন্ন চ্যানেল ব্যবহার করে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী ও  পাচারকারী ভোজ্যতেল সয়াবিন’সহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য, জ্বালানী তৈল ও ডিজেল অবৈধভাবে চোরাচাইপথে পার্শ্ববর্তী দেশ মিয়ানমারে পাচার করছে। এতে করে একদিকে সরকার কোটি কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে। একই সাথে দেশীয় উপরোল্লিখিত খাদ্যদ্রব্য, অকটেন, ডিজেল ইত্যাদি দেশ থেকে অন্যদেশে পাচার হওয়ার কারণে দেশে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি হচ্ছে। সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে পার্শ্ববর্তী দেশে বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি পাচারের বিষয়টি র‌্যাব-১৫ এর নজরে আসায় এই চক্রের সদস্যদের আটক এবং পাচাররোধে র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি ও তৎপরতা বৃদ্ধি করা হয়।

চলতি বছরের গত জানুয়ারি মাসে অবৈধভাবে পাশ্ববর্তী দেশে পাচাররোধে র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার কর্তৃক পরিচালিত অভিযানে সর্বমোট ৯ জন পাচারকারীকে আটক করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। একই সাথে তাদের হেফাজত থেকে উদ্ধার করা হয় সর্বমোট ৫ হাজার ৩৮৫ লিটার অকটেন, ৪০ কেজি পেঁয়াজ, ৩১ কেজি রসুন, ৩৬ কেজি আদা উদ্ধার এবং পরিবহন কাজে ব্যবহৃত ২টি পিকআপ, নগদ ১৮ হাজার ১০০  টাকা,৩টি বাটন ও ৪টি স্মার্ট ফোন জব্দ করা হয়।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image