• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০১ অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

হানিফ ভাইয়ের রক্ত গড়িয়ে গড়িয়ে আমার গায়ে পড়ছিল


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ২১ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০১:৩৯ পিএম
হানিফ ভাইয়ের রক্ত আমার গায়ে পড়ছিল
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

নিউজ ডেস্ক : গ্রেনেড হামলার ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সেদিন আমার সব নেতাকর্মী আমার চারপাশ ঘিরে মানবঢাল তৈরি করেছিল।  ওই সময় হানিফ ভাইয়ের (সাবেক মেয়র) গায়ে এবং মাথায় স্প্লিন্টার লেগেছিল। তার শরীর থেকে রক্ত গড়িয়ে গড়িয়ে আমার গায়ে পড়ছিল।

রোববার (২১ আগস্ট) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আয়োজিত সমাবেশে অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

নিজ দলের নেতাকর্মীদের কথা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রথম দিকে একটু ধরতে কষ্ট হয়েছিল যে ঘটনাটা কী ঘটছে। হঠাৎ এমন বোমাবাজি কেন? সেদিন হানিফ ভাই (সাবেক মেয়র হানিফ), মায়াসহ আমার অন্যান্য নেতাকর্মী চারদিক থেকে আমাকে ঘিরে ধরেছিল।

তিনি বলেন, আল্লাহ আমাদের বাঁচিয়ে দিয়েছেন। সে জন্য বেঁচে গিয়েছিলাম। আজকে ২০২২, প্রায় ১৮ বছর হয়ে গেল। যারা শরীরে স্প্লিন্টার নিয়ে আছে তাদের সীমাহীন দুর্ভোগ। যত বয়স বাড়ছে তাদের অবস্থা তত খারাপ হচ্ছে। আমি সাধ্যমতো করে যাচ্ছি। কিন্তু তারা যা হারিয়েছে তা তো আমরা দিতে পারব না। এই যে কষ্ট নিয়ে মানুষগুলো বেঁচে আছে, এগুলো কেউ চিন্তা করে? আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বারবার আঘাতের চেষ্টা করা হচ্ছে।

শেখ হাসিনা বলেন, ‌গ্রেনেড হামলার ভয়াবহতা থেকে আমরা যারা সেদিন বেঁচে গেছি তাদের যেন নতুন করে জন্ম হয়েছে। জনগণের প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা আছে। যতক্ষণ নিঃশ্বাস আছে জনগণের কল্যাণে আমি দায়িত্ব পালন করে যাব।

এর আগে সকালে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ২১ আগস্টের নিহতদের স্মরণে নির্মিত অস্থায়ী স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। ‘হানিফ ভাইয়ের রক্ত গড়িয়ে গড়িয়ে আমার গায়ে পড়ছিল’

২১ শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘সেদিন আমার সব নেতাকর্মী আমার চারপাশ ঘিরে মানবঢাল তৈরি করেছিল।

ওই সময় হানিফ ভাইয়ের (সাবেক মেয়র) গায়ে এবং মাথায় স্প্লিন্টার লেগেছিল। তার শরীর থেকে রক্ত গড়িয়ে গড়িয়ে আমার গায়ে পড়ছিল।’

রোববার (২১ আগস্ট) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আয়োজিত সমাবেশে অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

নিজ দলের নেতাকর্মীদের কথা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথম দিকে একটু ধরতে কষ্ট হয়েছিল যে ঘটনাটা কী ঘটছে। হঠাৎ এমন বোমাবাজি কেন? সেদিন হানিফ ভাই (সাবেক মেয়র হানিফ), মায়াসহ আমার অন্যান্য নেতাকর্মী চারদিক থেকে আমাকে ঘিরে ধরেছিল।’

তিনি বলেন, আল্লাহ আমাদের বাঁচিয়ে দিয়েছেন। সে জন্য বেঁচে গিয়েছিলাম। আজকে ২০২২, প্রায় ১৮ বছর হয়ে গেল। যারা শরীরে স্প্লিন্টার নিয়ে আছে তাদের সীমাহীন দুর্ভোগ। যত বয়স বাড়ছে তাদের অবস্থা তত খারাপ হচ্ছে। আমি সাধ্যমতো করে যাচ্ছি। কিন্তু তারা যা হারিয়েছে তা তো আমরা দিতে পারব না। এই যে কষ্ট নিয়ে মানুষগুলো বেঁচে আছে, এগুলো কেউ চিন্তা করে? আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বারবার আঘাতের চেষ্টা করা হচ্ছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‌গ্রেনেড হামলার ভয়াবহতা থেকে আমরা যারা সেদিন বেঁচে গেছি তাদের যেন নতুন করে জন্ম হয়েছে। জনগণের প্রতি আমাদের দায়বদ্ধতা আছে। যতক্ষণ নিঃশ্বাস আছে জনগণের কল্যাণে আমি দায়িত্ব পালন করে যাব।

এর আগে সকালে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ২১ আগস্টের নিহতদের স্মরণে নির্মিত অস্থায়ী স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

জাতীয় বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image