• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৮ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

বাজেটে বরাদ্দ বাড়ছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ২৭ মে, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১২:২৭ পিএম
বাজেটে বরাদ্দ বাড়ছে
বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত

নিউজ ডেস্ক : নীতিনির্ধারকরা বলছেন, এবার বিদ্যুৎখাতে সঞ্চালন ও বিতরণব্যবস্থার আধুনিকায়ন গুরুত্ব পাচ্ছে। এদিকে জ্বালানিখাতে অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে গ্যাস উত্তোলন, সঞ্চালন পাইপলাইন বৃদ্ধি অগ্রাধিকার পাবে।

জ্বালানির বৈশ্বিক অস্থিরতায় দিনশেষে বাড়তি দাম চাপছে সাধারণ ভোক্তার কাঁধেই। চলতি অর্থবছরের শুরুর দিকে (আগস্টে) সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম এক লাফে ৪২ থেকে ৫২ শতাংশ বাড়ানো হয়। যার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বছরের শুরুতে কোনো কোনো খাতে গ্যাসের দামও তিন গুণ বাড়ে। এদিকে টানা তিন মাস ৫ শতাংশের বেশি হারে গ্রাহকের ঘাড়ে বিদ্যুতের বাড়তি দামের বোঝা চাপানো হয়।

ভোক্তার এমন নাজুক অবস্থার মধ্যেই আরও একটি বাজেট আসছে। এর মধ্যেই আবার আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) সংস্কার প্রস্তাবের বিপরীতে প্রতিমাসেই দাম সমন্বয় আর ভর্তুকি থেকে সরে আসার কথা প্রতিনিয়তই বলে আসছেন নীতিনির্ধারকরা।
 
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, এই বাজেটের একটি বড় অর্থ ভর্তুকিতে যাবে। এখনও বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রায় ১২ টাকার মতো আমাদের ব্যয় হচ্ছে। যেখানে আমরা ৭ থেকে ৮ টাকায় বিক্রি করছি। কাজেই আমাদের সেই ঘাটতিটি তো পূরণ করতে হবে।’

জ্বালানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ড. ম তামিম বলেন, যেহেতু এটি একটি নির্বাচনী বছর, সেহেতু স্বাভাবিকভাবেই সরকার হয়তো বিদ্যুতের দাম আর বাড়াতে চাইবে না। সুতরাং সরকার সম্ভবত এ খাতে ভর্তুকি দেবে।

এবারের বাজেটেও শীর্ষস্থানীয় অবস্থানে থাকছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত। আগেরবারের তুলনায় বরাদ্দ বাড়িয়ে বিদ্যুৎ বিভাগের জন্য ৩৮ হাজার কোটি টাকা আর জ্বালানি বিভাগের জন্য ৩ হাজার ৩৫০ কোটি টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে। পায়রা, রামপালের পর এবার মাতারবাড়ি-রূপপুরের বিদ্যুৎও জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হওয়ার পালা। অর্থাৎ, সেই বিবেচনায় এই বাজেটে সঞ্চালন ও বিতরণ অবকাঠামোর উন্নয়ন গুরুত্ব পাচ্ছে।

অন্যদিকে নিজস্ব গ্যাসের উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি জ্বালানিতে তেল-গ্যাস সঞ্চালন পাইপলাইন আর মজুত সক্ষমতা বাড়ানো অগ্রাধিকার পাচ্ছে।

এ ছাড়াও প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা নিশ্চিতের তাগিদ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image