• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ১২ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

জামিনে জেল থেকে ছাড়া পেয়ে দেশ ত্যাগ আসামির


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ০৩ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০২:৫৮ পিএম
দেশ ত্যাগ আসামির
প্রধান আসামি শেখ হোসাইন মোঃইকবাল

মিঠামইন প্রতিনিধিঃ- ডিজিটাল নিরাপত্তার আইনে প্রধান আসামি শেখ হোসাইন মোঃইকবাল দেশ ত্যাগ করেছেন বলে গতকাল বুধবার ৩ই আগষ্ট ইটালি পাড়ি জমিয়েছেন বলে এলাকাবাসীও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়। ২০২০ সালে মিঠামইন থানা পুলিশের করা একটি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার প্রধান আসামি হিসাবে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ২ দফা পিছানোর পর আগামী ৪ই সেপ্টেম্বর ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে বিচারক মামলার বিচারের জন্য চার্জ গঠনের দিন ধার্য্য করেছেন। জানা যায়, ইকবাল উপজেলার ঘাগড়া গ্রামে মৃত মিলন শেখের পুএ।

ইটালি থেকে নিজ বাড়িতে এসে ২০২০ সালের ১৩ ই মার্চ মিঠামইন থানার এস,আই কিরণ ও নজরুল ইসলাম এর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজের অভিযোগ এনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিও ভাইরাল করে দেয়। এই ঘটনায় ভিডিও ভাইরালের সহযোগী হিসাবে শেখ বাবু আহমেদ ও শেয়ার করে ইকবালের পক্ষে।

মিঠামইন থানার এস,আই নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে শেখ মোঃ ইকবালকে প্রধান আসামী ও সহযোগী হিসাবে শেখ বাবু নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মিঠামইন থানায় মামলা দায়ের করেন।পুলিশ ঘটনার পর পরই শেখ ইকবালকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে কোর্টে চালানের পর জিজ্ঞাসা বাদের জন্য ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে আদালতে ১৬৪ ধারা স্বীকার উক্তি মূলক জবানবন্দিতে বেরিয়ে আসে স্হানীয় রিপোর্টার মুক্তার হোসেন গোলাপের নাম।তিনি আরও বলেন মুক্তার হোসেন গোলাপ এই পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ করার উৎসাহিত করে।সেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়।বিষয়টি পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তা  নজরে আসলে অধিকতর তদন্ত শুরু হয়।পরে মুক্তার হোসেন গোলাপ গ্রেফতার হয়ে ৫ মাস ৫ দিন জেল কেটেছেন।

ইকবাল উচ্চ আদালত থেকে জামিনে বেরিয়েই লাপাওা।মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস,আই তাজউদ্দীন আহমেদ ৩ মাসের মধ্যেই তদন্তকাজ শেষ করে শেখ ইকবাল, শেখ বাবু ও সাংবাদিক গোলাপের নামে আদালতে  চার্জশীট দাখিল  করেন।সাংবাদিক গোলাপের আইনজীবী এ্যাডঃ-কাউছার হোসাইন জানান,গত বছরের ১৮ই মার্চ ঢাকা সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক বিচারের দিন ধার্য্য করে ছিলেন গত বছরের ২০ই জুন।

পরবর্তীতে আবার বর্তমান বছরের ফ্রেবুয়ারি মাসে চার্জ গঠনের কথা ছিল।কিন্তু ইকবাল আদালতে হাজির না হয়ে ফেরারি ঘুরছিলো।এলাকার লোকজন জানান,বিমানবন্দরে চোখ পাঁকি দিয়ে গতকাল বুধবার রাতে সে ইটালি পাড়ি জমিয়েছে। এলাকাবাসী জানান,ইকবাল এর আগেও ডাকাতি, খুন সহ বিভিন্ন মামলার আসামি হয়ে বহুবার জেল কেটেছে।

অন্যদিকে সাংবাদিক গোলাপের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার দায়েরের প্রতিবাদে ভৈরব কিশোরগঞ্জে প্রতিবাদ সমাবেশ ও হয়েছে। বাংলাদেশ মফশ্বল সাংবাদিক ফোরাম আইনি সহায়তা দিচ্ছে বলে জানা যায়।

ঢাকানিউজ২৪.কম / বিজয়কর রতন/কেএন

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image