• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৮ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

কিশোর-তরুণদের চিন্তায় প্রকৃতি ও পরিবেশ পুনরুদ্ধার


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ০২ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১২:৪২ পিএম
কিশোর-তরুণদের চিন্তা
প্রকৃতি ও পরিবেশ পুনরুদ্ধার

বিধান চন্দ্র পাল 

আমাদের ভূমি, আমাদের ভবিষ্যত আমরাই হলাম পুনরুদ্ধারের প্রজন্ম বিশ্ব পরিবেশ দিবসের এ বছরের থিমকে সামনে রেখে বৈশ্বিক প্রকৃতি ও প্রতিবেশ পুনরুদ্ধারে আসুন ভিন্ন একটি সপ্তাহ তৈরি করি এই আহ্বানকে সাথে নিয়ে ১-৯ জুন তারিখ পর্যন্ত প্রকৃতি ও পরিবেশ পুনরুদ্ধার সপ্তাহের অংশ হিসেবে বাংলাদেশে প্রভা অরোরা দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালা গ্রহণ করে। দিনব্যাপী এ সকল অনুষ্ঠান গত ১ জুন, শনিবার সেফরন হল, ২২/১৬ ঢাকার মোহাম্মদপুরের খিলজী রোডে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সকালের অধিবেশনে কিশোর-তরুণদের চিন্তায় প্রকৃতি ও পরিবেশ পুনরুদ্ধার শীর্ষক বিশেষ প্রজেক্টসমূহের প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। এটি ইকো-স্কুলস্-বাংলাদেশ, প্রভা অরোরা এবং আগামী এডুকেশন ফাউন্ডেশনের বিজ্ঞান ভিত্তিক উদ্যোগ লাইফ ইজ ফান এর যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়। এ সকল প্রজেক্টের প্রদর্শনীতে এসওএস হারম্যান মেইনার কলেজের শিক্ষার্থীবৃন্দ এবং আগামীর সহযোগিতায় পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা অংশগ্রহণ করেন। এখানে উল্লেখ থাকে যে, এসওএস হারম্যান মেইনার কলেজ ও আগামী এডুকেশন ফাউন্ডেশনের প্রজেক্ট লাইফ ইজ ফান (এলআইএফ)-এর মাধ্যমে পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে ইকো-স্কুলস কার্যক্রমটি পরিচালিত হচ্ছে।

ইকো স্কুলস্  (https://ecoschoolsbangladesh.org/) বিশ্বের সর্ববৃহৎ পরিবেশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ফাউন্ডেশন ফর এনভায়রনমেন্টাল এডুকেশনের (FEE) অন্যতম একটি পরিবেশ শিক্ষা কার্যক্রম, যা সারা বিশ্বে ১০০টিরও বেশি দেশে ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে পরিচালিত হয়ে আসছে। এই কার্যক্রমটি বাংলাদেশের একমাত্র ন্যাশনাল অপারেটর হিসেবে প্রভা অরোরা বাস্তবায়ন করছে। এখানে আরো উল্লেখ থাকে যে, গ্রীনিং এডুকেশন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে সারা বিশ্বে যে সকল কার্যক্রমকে ইউনেস্কোর মাধ্যমে সম্প্রসারণের জন্য উৎসাহিত করা হচ্ছে তার মধ্যে ইকো স্কুলস্ অন্যতম।

জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুরু হয়। এরপর একে একে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীরা পরিবেশ ও প্রতিবেশ পুনরুদ্ধার সম্পর্কিত নিজের মতো করে শিক্ষকদের পরামর্শ নিয়ে যে সকল প্রজেক্ট তৈরি করেছেন সেগুলো চমৎকারভাবে সবার সামনে উপস্থাপন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় সকাল ১০টায়। অনুষ্ঠানের এই পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে দিনের কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন ইউনেস্কোর অফিসার-ইন-চার্জ ড. সুসান ভাইজ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রভা অরোরা’র প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং ফাউন্ডেশন ফর এনভায়রনমেন্টাল এডুকেশনের বাংলাদেশের ন্যাশনাল অপারেটর বিধান চন্দ্র পাল। প্রভা অরোরার উপদেষ্টা ইমেরিটাস প্রফেসর ড. এম এ সাত্তার মণ্ডলের সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন ন্যাশনাল কারিকুলাম এন্ড টেক্টট বুক বোর্ড এর সেক্রেটারী মোছা. নাজমা আক্তার, প্ল্যানেটারী স্পেশালিস্ট ড. আফতাব উদ্দিন, এসওএস চিলড্রেন্স ভিলেজেস ইন্টারন্যাশনালের ন্যাশনাল ডিরেক্টর ড. এনামুল হক, প্রশিক্ষক নাফিসা খানম, হলিক্রস গার্লস হাই স্কুলের সিনিয়র টিচার শারমিন কবির, উন্নয়নকর্মী ডালিয়া দাস প্রমুখ। এ সময় ফাউন্ডেশন ফর এনভায়রনমেন্ট এডুকেশন-এর পরিবেশ শিক্ষা প্রোগ্রামের সিনিয়র ডিরেক্টর প্রমোদ কুমার শর্মার পাঠানো মন্তব্য সবার উদ্দেশ্যে পাঠ করে শোনানো হয়।  

বিকেল ৩টা থেকে অনুষ্ঠিত হয় পরিবেশ পরিসেবা শিক্ষক শিক্ষার্থীর করণীয় শীর্ষক ইমিরেটাস অধ্যাপক ড. এম এ সাত্তার মণ্ডলের সাথে শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের এক বিশেষ কথোপকথন পর্ব।

বিকেল ৪টায় ইউএনইপি‘র লিড পার্টনার হিসেবে প্রভা অরোরা বাংলাদেশে টাইড টার্নার্স প্লাস্টিক চ্যালেঞ্জ শুরু করতে যাচ্ছে, সেটিরও উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের  অতিরিক্ত সচিব (জলবায়ু পরিবর্তন অনুবিভাগ, অতিরিক্ত দায়িত্ব) জনাব ইকবাল আব্দুল্লাহ হারুন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে টিটিপিসি বাংলাদেশের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন ইউএনইপির এনভায়রনমেন্ট এডুকেশন কনসালটেন্ট গায়েত্রী রাঘাওয়া, সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্ট এডুকেশন এর সিইই একাডেমির ডিরেক্টর মাধবী যোশী এবং স্থপতি সালমা এ শফি। অনুষ্ঠানে ড. এমএ সাত্তার মণ্ডলের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন পরিবেশবিদ মহিদুল হক খান, গবেষক ড. ইয়াসমিন করিম। ড. আফতাব উদ্দিনের সঞ্চালনায় এই পর্বের শুরুতেই টিটিপিসি বাংলাদেশ সম্পর্কে একটি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন প্রভা অরোরার ম্যানেজার মাহিনূর নাজিয়া ফারাহ। এই পর্বে প্রভা অরোরার প্রতিষ্ঠাতা বিধান চন্দ্র পাল সবশেষে সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন।  

পুরস্কার বিতরণী অংশের শুরুটা হয় গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডপটেশনের এডুকেশন এন্ড ইয়ূথ লিডারশীপ লিড এড্রিয়ানা ভালেনজ্যুউলা জিমেনেহ্ এর বক্তব্য প্রদানের মাধ্যমে। তিনি নেদারল্যান্ডস থেকে ভার্চুয়ালি এই আয়োজনে যুক্ত হন।  

বিকেলে প্রভা অরোরা’র নিয়মিত আয়োজন পরিবেশ সন্ধ্যায় দেশের বিশিষ্ট শিল্পীরা পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সঙ্গীত, গান, নৃত্য ও আবৃত্তি পরিবেশ করেন। সবশেষে পুরস্কার বিতরণের মাধ্যমে শেষ হয় দিনব্যাপী আয়োজনের। পুরস্কার বিতরণী পর্বে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত FEE এর অন্যতম আরেকটি প্রোগ্রাম ওয়াইআরই কম্পিটিশনে যারা ন্যাশনাল উইনার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন তাদেরকেও পুরস্কৃত করা হয়।  সারা দিনের বিভিন্ন অধিবেশনে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের উর্দ্ধতন প্রতিনিধি, উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, সংস্কৃতি কর্মী, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

পুররুদ্ধার সম্পর্কিত দিনব্যাপী যে সকল প্রজেক্ট উপস্থাপন করা হয় সেগুলোর মধ্য থেকে বিচারকদের বিচারে যে সকল বিদ্যালয় বিজয়ী হয় সে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয় এবং সকলকে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানের একটি পর্বে প্রভা অরোরার অন্যতম প্রোডাক্ট সবুজ সাথী ইকমার্স সাইটের নতুন ওয়েবসাইটও (https://www.sabujsathi.center/) লঞ্চ করা হয়। পরিবেশবান্ধব জীবনাচারণ গড়ে তুলতে এই ওয়েবসাইটটি বিশেষ ভূমিকা পালন করবে বলে উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ থাকে যে, প্রকৃতি ও পরিবেশ পুনরুদ্ধার সপ্তাহের অংশ হিসেবে এ বছর বাংলাদেশে প্রভা অরোরার উদ্যোগে আরো অনেকগুলো কর্মসূচি অচিরেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এর মধ্যে নদী ও জলাশয় পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা, দেশীয় বৃক্ষরোপণ করা প্রভৃতি অন্যতম।   

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image