• ঢাকা
  • বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২২ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

সাবেক এমপির উস্কানিমূলক বক্তব্যে ভোটার এবং নেতাকর্মীদের মাঝে আতঙ্ক


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ০৬ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০৬:৫৩ পিএম
সাবেক এমপির উস্কানিমূলক বক্তব্য
সাবেক এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোজাফফর হোসেন

জামালপুর প্রতিনিধি : জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মোটরসাইকেল প্রতীকে বিজন কুমার চন্দকে ভোট না দিলে ভোটার-জনতা প্রতিহত করার উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়েছেন সাবেক এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোজাফফর হোসেন।

রবিবার রাতে সদর উপজেলার দিগপাইত ইউনিয়নের ছোনটিয়া কাচারী মাঠে সদর উপজেলা দক্ষিণ শাখা ছাত্রলীগ আয়োজিত নির্বাচনী ছাত্র সমাবেশে এই উস্কানিমূলক বক্তব্য দেন তিনি। ওই সমাবেশে সাবেক এমপির দেওয়া বক্তব্যের একটি ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ও ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক এবং ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, সদর উপজেলার ছোনটিয়া কাচারী মাঠের ওই ছাত্র সমাবেশে উদ্বোধকের বক্তব্য দেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাফিউল করিম রাব্বি। সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিজন কুমার চন্দ।

এছাড়া সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল হামিদ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও জামালপুর পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন ছানু, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ব ম জাফর ইকবাল জাফু, সদর আসনের সাবেক এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোজাফ্ফর হোসেন, জেলা যুবলীগের সভাপতি রাজন সাহা রাজুসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন।

ওই সমাবেশে সাবেক এমপি ইঞ্জিনিয়ার মো. মোজাফ্ফর হোসেন তার পছন্দের চেয়াম্যান প্রার্থী বিজন কুমার চন্দের মোটরসাইকেল প্রতীকের পক্ষ নিয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, ভোটার, সাধারন জনতা ও ইউপি চেয়ারম্যানকে হুমকি দিয়ে বলেছেন, ‘আমি বলতে চাই, বিজন বাবুকে ছাড়া তোমরা যদি আর কাউকে ভোট দেওয়ার চেষ্টা করো তাহলে আমার ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ তোমাদের প্রতিরোধ করবে ইনশাআল্লাহ। তাই বলতে চাই আর দেরি নাই। আর মাত্র দুটো দিন আছে। এখনো সময় আছে আসো আমাদের সাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে, আমাদের পিছে আসো। আমাদের সাথে ঐকবদ্ধ হও, বিজন বাবুর পিছে আসো। বিজন বাবুর মোটসাইকেল মার্কায় ভোট দাও। তানা হলে মানুষ খাবার পারবে না। আবার চেয়ারম্যানগিরি করতে চাও, করতে পারবা? যদি বিজন বাবু উপজেলার চেয়ারম্যান হয় তাহলেই পারবা। না হলে পারবা না।’

সরজমিনে জানা যায়, সাবেক এমপি মো. মোজাফফর হোসেনের এমন উস্কানিমূলক বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় জামালপুর পৌরসভাসহ ১৫টি ইউনিয়নের ভোটার জনতার মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সাবেক এমপির এমন পক্ষপাত ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে অনেকেই বলছেন। রবিবার রাতের ওই ছাত্র সমাবেশে উস্কানিমূলক বক্তব্যের পর সদর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সাবেক এমপির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাবেক এমপির এমন উস্কানিমূলক বক্তব্যকে কেন্দ্র করে আগামী ৮ মে জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করাসহ নির্বাচনের ওপর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে দিগপাইত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান বলেন, আমাদের দলীয় সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে আমাদের নির্দেশ দিয়েছেন। আমরা সেই লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছি। কিন্তু সদর আসনের সাবেক এমপি প্রকাশ্যে মোটরসাইকেল প্রতীকের পক্ষ নিয়ে বিভিন্ন নির্বাচনি সভা-সমাবেশে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে বিভেদ সৃষ্টি করছেন। রবিবার রাতে ছোনটিয়া কাচারী মাঠের মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে দেওয়া উস্কানিমূলক বক্তব্য সদর উপজেলার সর্বস্তরের ভোটার-জনতার মাঝে ছড়িয়ে পড়েছে। সাবেক এমপি নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন। তার উস্কানিমূলক এমন বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে সাবেক এমপির বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।  

দিগপাইত ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক উঠিয়ে দিয়েছে। তার কারন হলো সাধারণ জনগণ যাতে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারে। কিন্তু গতকাল সাবেক এমপি একটি সমাবেশে যে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়েছে তাতে করে সাধারণ ভোটারদের মাঝে ভয়ভীতি সৃষ্টি হয়েছে। এরকম উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার ফলে জনগণ ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারবেন কিনা তা নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে আছে। আমরা চাই জনগণ যাতে নির্বিঘ্নে স্বত:ফূর্তভাবে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারে। তিনি এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।  

জামালপুর জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ শানিয়াজ্জামান তালুকদার বলেন, সাবেক এমপি মোজাফফর হোসেনের উস্কানিমূলক বক্তব্যের ভিডিও ক্লিপসহ অভিযোগ পেয়েছি। এর প্রেক্ষিতে সাবেক এমপি মোজাফফর হোসেন ও মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী বিজন কুমার চন্দের কাছে ব্যাখ্যা চেয়ে নোটিশ দিয়েছি। তাদের জবাব পাওয়া গেলে তা বিশ্লেষণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image