• ঢাকা
  • সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

নানা অভিযোগে ঠাকুরগাঁওয়ের ডিসিসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২:২৩ পিএম
ঠাকুরগাঁওয়ের ডিসিসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা
জেলা প্রশাসক কার্যালয়

গৌতম চন্দ্র বর্মন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও স্টেশন ক্লাবের টেনিস খেলোয়াড়, গণ্যমান্য ব্যক্তি ও প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তাদের বাদ দিয়ে মনগড়া ভোটার তালিকা প্রণয়ন এবং নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা সহ স্টেশন ক্লাবে খেলোয়ারদের জুয়া খেলায় বাধ্য করায় জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকসহ ৫ সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে।

সেই মামলার প্রেক্ষিতে কথিত নির্বাচন অনুষ্ঠানে অস্থায়ী ও অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। মূল মামলা নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত প্রণয়নকৃত ভোটার তালিকা দিয়ে কোনো প্রকার নির্বাচন করতে বিবাদী পক্ষকে নিষেধ করা হয়েছে। সেইসঙ্গে তিন দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঠাকুরগাঁওয়ের সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের বিচারক শবনম মোস্তারী উক্ত আদেশ দেন।

গত ২১ সেপ্টেম্বর এ মামলাটি করা হলেও গতকাল বুধবার মামলার যাবতীয় তথ্য প্রমান সহ কাগজ পত্র সাংবাদিকদের হাতে আসে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের পরিচালনাধীন স্টেশন ক্লাব একটি এরিষ্টোক্রেট ক্লাব। ১৯৮৮ সালে প্রতিষ্ঠিত এই ক্লাবটি খেলাধুলা, সমন্বয় ও বিনোদনে ভূমিকা রাখে। ক্লাবের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা, গণ্যমান্য ব্যক্তি ও টেনিস খেলোয়াড়রা ক্লাবটির সদস্য। এ ছাড়াও জাতীয় সংসদ সদস্য, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং জেলা ও দায়রা জজ অনারারি সদস্য হিসেবে বিবেচিত হবেন। কিন্তু অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মামুন ভুইয়া প্রশাসনিক ক্ষমতা বলে গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে ষ্টেশন ক্লাবটিকে তার ব্যক্তিগত ব্যবসা কেন্দ্রে পরিণত করেন। তিনি টেনিস বল, জুতা, গ্রিপ, ব্যান্ড ইত্যাদি বাজারের চাইতে অতিরিক্ত দামে বিক্রি করে লাভবান হয়ে আসছেন।

তা ছাড়াও ওই ক্লাবের টাকার বিনিময়ে টেনিস জুয়া খেলার প্রচলন শুরু করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক। জুয়ার ম্যাচে অংশ নিতে অনেক খোলোয়াড়কে বাধ্য করেন তিনি। এসব দুর্নীতির পরও তিনি ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির নাম বাদ দিয়ে গত ৫ সেপ্টেম্বর একটি মনগড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করেন, যাতে সর্বশেষ নির্বাচিত কমিটির ট্রেজারার অবসরপ্রাপ্ত ক্রীড়া কর্মকর্তা আবু মহিউদ্দীন, টেনিস সেক্রেটারী সাবেক সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল মোমেন, স্কাউটসের জেলা সম্পাদক হাসানুজ্জামান বিপ্লব, ডা. এনামুল হক, ডা. শাহজাহান নেওয়াজ, কৃষি কর্মকর্তা আনিসুর রহমানের নাম নেই। অপরদিকে মনগড়া ভোটার তালিকা দিয়ে পকেট কমিটি গঠনের জন্য ১৩ সেপ্টেম্বর তফসিল ঘোষণা করা হয়।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমানকে মৌখিকভাবে অবগত করেও ভোটার তালিকায় নাম সংযোজন না হওয়ায় বাদী হয়ে গত ২১ সেপ্টেম্বর ঘোষণামূলক ডিক্রি চেয়ে সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আবু তোরাব মানিক ।

এসব অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক (ডিসি) মাহাবুবুর রহমানের মোবাইল ফোনে (০১৭১৫১৭০৩৬৫) যোগাযোগ করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image