• ঢাকা
  • বুধবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ২৯ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

জাটকার কেজি ৮'শ বিক্রি হচ্ছে লক্ষ্মীপুরে


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ০৫ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০২:৩৯ পিএম
লক্ষ্মীপুরে
জাটকার কেজি ৮'শ বিক্রি হচ্ছে

নাজমুল হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুর জেলার মেঘনা নদীতে ইলিশ শিকারে নামে জেলেরা। কিন্তু জেলেদের জালে আশানুরূপ ইলিশ ধরা পড়ছে না। তাই হাটে-বাজারেও তেমন একটা ইলিশ উঠছে না। অল্প পরিমাণে ইলিশের দেখা মিললেও দাম একেবারেই চড়া। ফলে সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের বাহিরে রুপালি ইলিশ।

শুক্রবার (৩ এপ্রিল) রাতে লক্ষ্মীপুর জেলা পৌর শহরের দক্ষিণ তেমুহনী মাছ বাজারে গিয়ে দেখা মিলে।

২'শ গ্রাম ওজনের জাটকা ইলিশের কেজি হাঁকাচ্ছে ৮' টাকা করে। ৩০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ১২০০ টাকা কেজি, ৫০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ ১৪০০ থেকে ১৫০০ টাকা কেজি ধরে বিক্রি হচ্ছে। ৭০০ গ্রাম ওজনের ইলিশের কেজি দুই হাজার থেকে ২২০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। 

বাজারে ইলিশ কিনতে আসা ক্রেতারা বলেন, ইলিশের অনেক দাম, তাই কেনা সম্ভব হবে না। নদীতে অভিযান সবেমাত্র শেষ হলো। বাজারে মাছও কম, তাই উচ্চ মূল্য হাঁকাচ্ছেন বিক্রেতারা। 

ইলিশ বিক্রেতারা বলেন, কমলনগরের একটি মাছঘাট থেকে মাছ কিনে এনে বাজারে বিক্রি করি। মাছ ধরা শুরু হলেও ঘাটে মাছের পরিমাণ একেবারে কম। নদী থেকে বেশির ভাগ জেলেরা খালি হাতে ফিরে আসছেন। কোনো কোনো জেলে দুই বা তিনটা মাছ ধরতে পারছে। মাছ ধরা না পড়ায় ঘাটেই দাম বেশি। তাই আমাদেরকে বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।জেলেদের জালে মাছ ধরা না পড়ায় বাজারে মাছ নেই। তাই দাম বেশি। 

লক্ষ্মীপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা বলেন, এখনও ইলিশের মৌসুম পুরোপুরি শুরু হয়নি। সাধারণত আগস্ট, সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর মাস হলো ইলিশের মৌসুম। তবে সারা বছরই কম-বেশি ইলিশ পাওয়া যায়। কিন্তু বর্তমান সময়টাতে কোনো বৃষ্টিপাত নেই। ফলে নদীতে নাব্যতা সংকট। তাই এ সময়টাতে নদীতে ইলিশ পাচ্ছে না জেলেরা। বর্ষা শুরু হলে এবং নদীতে পানির গভীরতা বাড়লে বেশি মাছ ধরা পড়তে পারে।  

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image