• ঢাকা
  • রবিবার, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৬ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

অষ্টগ্রামে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনকে ঘিরে চলছে গণসংযোগ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ০১:১৫ পিএম
নির্বাচনকে ঘিরে চলছে গণসংযোগ
উপজেলা পরিষদ নির্বাচন

মিঠামইন (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: আগামী ২১শে মে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ত্রিমুখি ভোটের লড়াই চলছে। এবারের উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের হেভিয়েট প্রার্থী দু- দুবারের আওয়ামীলীগ মনোনীত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব শহিদুল ইসলাম জেমস, বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও অভিভাবক এএফ মাসুক নাজিম ও মনিরুজ্জামান লিটন। শহিদুল ইসলাম জেমস কাপ পিরিছ প্রতীক নিয়ে লড়বেন। ঘোড়া প্রতিক নিয়ে এএফ মাসুক নাজিম। পাশাপাশি দিন রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন আনারস প্রতিক নিয়ে মনিরুজ্জামান লিটন। জানা যায়, এই প্রথম দলীয়ভাবে মনোনীত না থাকায় ভোটারের দ্বারে দ্বারে বার বার ভোট চাইছেন প্রার্থীরা। তার পরও জনগনের নীরবতা বুঝা যাচ্ছেনা প্রার্থীদের ভাল বা মন্দের অবস্থান। তবে দুপক্ষের ভোটের লড়াই তৃণমূল পর্যায়ে লড়বে বলে ধারণা করা যায়। কে হবে বিজয়ী আগামী ২১ মে ২০২৪ সালের ৫ বছরের জন্য উপজেলা পরিষদের বিজয়ী চেয়ারম্যান। 

এবারে নির্বাচনে অষ্টগ্রাম  উপজেলার ৮ইউনিয়নের  মোট ভোটার সংখ্যা এক লক্ষ ৩৬ হাজার দুইশত ৯৫ জন,। তাই ভোটকেন্দ্র ৫৫ টি, ভোট কক্ষের সংখ্যা ৩৪১টি, অস্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৪টি, এরমধ্যে পুরুষের সংখ্যা ৭০হাজার ৯ শত ৯৭টি, মহিলা ভোটারের সংখ্যা ৬৫ হাজার ২শত ৯৭ হাজার ভোটার রয়েছে। নির্বাচনী কাজে নিয়োগকৃত রিটারনিং কর্মকর্তা ১জন, প্রিজাইডিং ৫৫ জন, সহকারি প্রিজাইডি ৩৪৫ পোলিং রয়েছে ৬৯০ জন। এবারের নির্বাচনে দলীয় মননীয় না থাকায় প্রার্থীদের সংখ্যা খুবই কম পাশাপাশি ভোটারদের প্রচার-প্রচারণার আমেজ নিরব ভূমিকা পালন করছে। অন্যদিকে বাংলাদেশ জাতীয় তাবাদী যুবদলের অষ্টগ্রাম উপজেলার আহবায়ক আনোয়ার হোসেন জানান, দলীয়ভাবে উপরের নির্দেশ না থাকায নেতৃবৃন্দের ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে যাবেন না। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনীত ব্যক্তি না থাকায় তারা ব্যক্তি বিষেশে ভোটকেন্দ্র ভোট দিতে যেতে ইচ্ছুক।  নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করায় এবং তাদের দলীয় নির্দেশনা না থাকায় ভোটকেন্দ্রে উপস্থিতি সম্পন্ন ব্যক্তি স্বাধীনতাও পারে। অন্যদিকে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন না থাকায় অনেকেই ব্যক্তিবিষেশে ভোট দিতে পারেন। 

এ বিষয়ে উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে সাক্ষাতে কথা বললে তিনি জানান নির্বাচনের প্রস্তুতি প্রায় শেষের দিকে এখন পর্যন্ত কোন প্রার্থীদের আইন লঙ্ঘন ও অপ্রীতিকর ঘটনা হয়েছে বলে তার জানা নেই। তিনি আরো জানান নির্বাচনকে ঘিরে সকল ধরনের নিরাপত্তার প্রস্ততি নিচ্ছেন। অন্যদিকে  প্রার্থীরা আচরন বিধি লঙ্গন করে যাচ্ছেন। প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করছেন।
 

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আরো পড়ুন

banner image
banner image