• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৭ অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

তত্বাবধায়ক সরকারে ভোট হলে বিএনপি বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেঃ ফখরুল 


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৪:২৭ পিএম
তত্বাবধায়ক সরকার, বিএনপি বিপুল ভোটে জয়লাভ
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ নেতৃবৃন্দগন

গৌতম চন্দ্র বর্মন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের মাধ্যমে ভোট হলে বিএনপি ও অন্য দলগুলো বিপুল ভোটে জয়লাভ করবে। এবার আমরা অপরিবর্তনীয় সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে এই সরকারের অধিনে আমরা কোন নির্বাচনে অংশগ্রহন করবো না। একটি নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া নির্বাচনে যাওয়ার কোন প্রশ্নই আসে না।

বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় ঠাকুরগাঁও শহরের কালীবাড়িতে নিজ বাসভবনে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন তিনি।

সরকারের ক্ষমতায় টিকে থাকা নিয়ে তিনি বলেন,আ’লীগ সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য যা যা করা দরকার সে কাজগুলো করে যাচ্ছে। জনগনের যে স্বার্থ সেটাকে তারা বিবেচনা করছে না। এজন্য তারা মুক্ত গণতন্ত্রকে বহু আগেই বিনষ্ট করে ফেলেছে।
মুক্ত সাংবাদিকতা নিয়ে তিনি বলেন, মুক্ত সাংবাদিকতাও এই সরকার অনেক আগেই ধংস্ব করে দিয়েছে। তারা বিভিন্ন আইন দিয়ে সাংবাদিকদের সত্য কথা বলা এবং লিখা একবারেই বাধাঁ নিষেধ তৈরি করেছে। সাংবাদিক হত্যা, নির্যাতন এসব অহরহ হচ্ছে যার কারণে কেও সাহস করে আর সত্য লিখছে না।

আমরা গণতন্ত্রে ফিরে যেতে চাই বলে মির্জা আলমগীর বলেন, ৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ করেছি। ৭২ এ সংবিধান তৈরী হয়েছিল। পরবর্তিকালে সৈরচার এরশাদকে সরিয়ে গনতন্ত্র ফিরিয়ে এনেছিলাম। পরে আবার তত্ত্বাবধায়ক সরকার দিয়ে নির্বাচন কালীন সময়ে নিরপেক্ষ নির্বাচন যাতে করে হতে পারে সে ব্যবস্থা করা হয়েছিল। একই সাথে আমরা বলেছি এ দেশের মানুষের চাহিদা অনুযায়ী নিরপেক্ষ নির্বাচন যদি না হয়, জনসাধারণ তাদের পছন্দের মানুষদের নির্বাচিত করতে না পারে তাহলে সমস্ত ব্যবস্থাগুলো ভেঙ্গে পরবে

পাকিস্তান সরকার থেকে বর্তমান সরকার আরো নিকৃষ্ট উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, আমরা পাকিস্তান আমলে আর্থিক ও জীবন যাত্রার দিক থেকে এর থেকে ভালো ছিলাম। তারপরেও পাকিস্তান সরকার যেহেতু আমার অধিহার ও সম্পদ হরণ করতো সে কারণে আমরা যুদ্ধ করেছি। কিন্তু এখন তার থেকেও খারাপ অবস্থায় আমরা আছি। এখন দেশে ১ লক্ষ ৯২ হাজার কোটিপতি আছে। এখানে গরিব মানুষের অবস্থা আরো খারাপ হচ্ছে। ৪২% দারিদ্রসীমার নিচে সে দেশকে উন্নত দেশ কিভাবে বলা যায়।

এসময় জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান,সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন সহ জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image