• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৩ ফেরুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

কক্সবাজারে তিনদিনে ৪ লাখের বেশী পর্যটক


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২:১৪ পিএম
কক্সবাজার পর্যটক
সমুদ্র সৈকত পাড়

জাফর আলম, কক্সবাজার প্রতিনিধি: সমুদ্র সৈকত পাড়ে যতদুর চোখ যায় মানুষ আর মানুষ। এসব মানুষের চোখে মুখে উচ্ছ্বাস আর বাধঁভাঙ্গা আনন্দ। নোনাজলে গা ভাসানো আর বালিযাড়িতে আনন্দে মেতেছে হাজারো মানুষ।অনেক পর্যটক হোটেল কক্ষ ভাড়া না পেয়ে সমুদ্র পাড়ে রাত পার করেছেন।

এছাড়াও কক্সবাজারে ভ্রমনে আসা পর্যটকেরা জানালেন নানা ভোগান্তির কথা। হোটেলে রেস্তোঁয়ায় অতিরিক্ত দাম নেয়ার অভিযোগ এই পর্যটকের।পর্যটক হয়রানী রোধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানালেন কতৃপক্ষ। হোটেল কিংবা রেস্তোরায় অতিরিক্ত দাম নিলে জেল জরিমানা করা হচ্ছে। মূল্য তালিকা টাঙানো না থাকায় অনেক প্রতিষ্ঠানকে জরিমানার আওতায় এনেছে বলে জানান পর্যটনের জেলা প্রশাসনের পর্যটন সেলের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুম বিল্লাহ।

হোটেল মোটেল অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি কলিম উল্লাহ বলেন, মৌসুমে পর্যটকের বাড়তি চাপ থাকায় ভোগান্তি এড়াতে অগ্রিম হোটেল বুকিং দিয়ে কক্সবাজার আসার পরামর্শ এই ব্যবসায়ীর।তিন দিনে কক্সবাজারে পর্যটক সমাগম হয়েছে অন্তত ৪ লাখ। আগামী থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে সপ্তাহজুড়ে থাকবে পর্যটকের ভিড়। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে বছরের শেষ ১৫ দিনে কক্সবাজারে পর্যটক সমাগমের আশা অন্তত পনেরো লাখ।কক্সবাজার হোটেল মোটেল মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কাশেম সিকদার জানিয়েছেন, তিনদিনের টানা ছুটির আজ রোববার শেষ দিন।

এই তিনদিনে কক্সবাজারে প্রায় ৪ লাখের বেশি পর্যটকের আগমন ঘটেছে। স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ থাকায় আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কক্সবাজারে পর্যটকের ভিড় থাকবে। কক্সবাজারে পাঁচ শতাধিক আবাসিক হোটেল মোটেল ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৮০ শতাংশ বুকিং হয়ে গেছে। অতিরিক্ত পর্যটক আগমনের কারণে কিছু পর্যটক রুম পায়নি এ ধরনের তথ্যও রয়েছে ।কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের এসপি জিল্লুর রহমান জানান, স্বাভাবিকভাবে বিপুল সংখ্যক পর্যটক কক্সবাজার ভ্রমণে এসেছেন।

তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশ টহল বাড়িয়েছে। পোশাকধারীর পাশাপাশি সাদা পোশাকে নজরধারি করা হচ্ছে। পর্যটকদের কাছ থেকে কোনো অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।কক্সবাজার জেলা প্রশাসক শাহীন ইমরান জানান, পর্যটক হয়রানি রোধ এবং পর্যটকদের নিরাপত্তায় মাঠে রয়েছে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে একাধিক টিম। এছাড়া পর্যটকদের নিরাপত্তায় ট্যুরিস্ট পুলিশের সঙ্গে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। 
 

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

পর্যটন বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image