• ঢাকা
  • শনিবার, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০২ জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

সিলেটে বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ১৬ মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:৫০ পিএম
বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ
বন্যা পরিস্থিতি

সিলেট প্রতিনিধি:  সিলেট জুড়ে টানা বর্ষণে বন্যার পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপধারণ করেছে। একের পর এক নিম্ন এলাকা তলিয়ে যাচ্ছে। উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের কানাইঘাট, গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর ও কোম্পানীগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। বিভিন্ন উপজেলায় গ্রামীণ রাস্তা-ঘাট তলিয়ে যাওয়ায় বেড়েছে জনদুর্ভোগ। অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও পাঠদান বন্ধ রয়েছে। কোম্পানীগঞ্জে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। সিলেটের সাথে কানাইঘাট ও গোয়াইনঘাটের সড়ক যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। তবে, জকিগঞ্জে কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

কানাইঘাটে সুরমা নদীর পানি কিছুটা কমলেও সুরমা ডাইকের গৌরিপুর-কুওরঘড়ি এলাকায় ৬টি ভাঙ্গন কবলিত পয়েন্ট দিয়ে তীব্র গতিতে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। বিভিন্ন এলাকায় কাঁচা বাড়ি-ঘর বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এখনও উপজেলার বেশির ভাগ ইউনিয়নের বিপুল সংখ্যক বাড়ি-ঘর বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে মানবেতর ভাবে জীবনযাপন করছেন। অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি উঠায় পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। মাঠ ও গোচারণ ভূমিতে পানি উঠায় গো-খাদ্য সংকটসহ মৎস্য খামারিরাও রয়েছেন চরম শঙ্কায়।

এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার সুরমার পানি সিলেটের কানাইঘাটে বিপদসীমার ১২৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া, একই সময়ে কুশিয়ারার পানি অমলশীদে বিপদসীমার ৯৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে এবং সারি-গোয়াইন নদীর পানি সারিঘাটে বিপদসীমার পাঁচ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পাউবো সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী আসিফ আহমেদ জানান, সিলেট অঞ্চলে বৃষ্টির সঙ্গে যোগ হয়েছে উজান থেকে নেমে আসা ঢল। ভারতের  মেঘালয়, ত্রিপুরা ও আসাম প্রদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে টানা বৃষ্টি হচ্ছে। এর ফলে দেশের প্রধান নদ-নদী গুলোর পানি দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

সিলেট আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী জানান, সিলেটে বৃষ্টিপাত অনেকটা কমে এসেছে। ১৮ মে পর্যন্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে, ২০ ও ২১ মে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। শনিবার সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ৬২ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত  রেকর্ড করা হয়েছে। এছাড়া, সোমবার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত  রেকর্ড হয়েছে বলেও জানান তিনি।
 

ঢাকানিউজ২৪.কম / আবুল কাশেম রুমন/কেএন

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image