• ঢাকা
  • বুধবার, ২৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৮ ফেরুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

মতিঝিলে আগামী বছর ডিসেম্বরে মেট্রোরেল উদ্বোধনের আশা


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০১:১৯ পিএম
মতিঝিলে আগামী বছর ডিসেম্বরে উদ্বোধনের আশা
মেট্রোরেল

নিউজ ডেস্ক : ডিএমটিসিএলের এমডি এম এ এন সিদ্দিক বলেন, ঢাকায় যানজটের প্রভাবে বছরে ৩৮০ বিলিয়ন ডলার ক্ষতি হচ্ছে, এমআরটি চালু হলে বছরে ৪০ হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় হবে। এমআরটি লাইন-৬ চালুর মাধ্যমে যাতায়াত খরচ বাবদ প্রতিদিন আট কোটি ৩৮ লাখ টাকা সাশ্রয় হবে। তার সঙ্গে যান চলাচল খরচ বাবদ সোয়া কোটি টাকার মতো সাশ্রয় হবে।

আগামী বছরের ডিসেম্বরে মেট্রোরেলের মতিঝিল অংশের উদ্বোধন করা যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এমএএন সিদ্দিক।

বুধবার মেট্রোরেলের উত্তরার দিয়াবাড়ী থেকে আগারগাঁও অংশের উদ্বোধনের পর সুধী সমাবেশে তিনি এ আশার কথা জানান। ডিএমটিসিএলের এমডি বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। আজ আপনাদের সবাইকে তিনি মেট্রোরেল উপহার দিয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী কমলাপুর অংশের কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে। জুন ২০২৫ সালে এই অংশ চালু করা হবে বলে আমরা আশা করি। এ ছাড়া আরও তিনটি মেট্রোরেল নির্মাণকাজ বাস্তবায়ন করা হবে।

আশা করছি ২০৩০ সালে ঢাকা মহানগরীতে মেট্রোরেলের একটা মাকড়শার জাল তৈরি করা সম্ভব হবে, যার মাধ্যমে রাজধানীর প্রধান প্রধান যেকোনো অংশ থেকে যাতায়াত করা যাবে।

এমএএন সিদ্দিক বলেন, আপনারা সবাই জানেন যে, মেট্রোরেলের একটা মূল অনুষঙ্গ হচ্ছে ট্রানজিট ওরিয়েন্টেড ডেভেলভমেন্ট (টিওডি)। প্রধানমন্ত্রী আমাদের উত্তরা উত্তর সেন্ট্রাল স্টেশনের পাশে ২৮ দশমিক ৬১ একর জায়গা সংস্থান করে দিয়েছেন। এখানে টিওডি নির্মাণের জন্য নকশা তৈরি করে দিয়েছেন।

‘প্রধানমন্ত্রী আমাদের বলেছেন, প্রত্যেকটি ম্যাস র‍্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটি) লাইনে যেন আমরা স্টেশন প্লাজা করি। এমআরটি লাইন-৬-এ চারটি স্টেশন প্লাজা নির্মাণের কাজ বিভিন্ন পর্যায়ে বাস্তবায়নাধীন আছে।

ঢাকায় যানজটের প্রভাবে বছরে ৩৮০ বিলিয়ন ডলার ক্ষতি হচ্ছে উল্লেখ করে ডিএমটিসিএলের এমডি বলেন, এমআরটি চালু হলে বছরে ৪০ হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় হবে। এমআরটি লাইন-৬ চালুর মাধ্যমে যাতায়াত খরচ বাবদ প্রতিদিন আট কোটি ৩৮ লাখ টাকা সাশ্রয় হবে। তার সঙ্গে যান চলাচল খরচ বাবদ সোয়া কোটি টাকার মতো সাশ্রয় হবে।

ডিএমটিসিএলের এই কর্মকর্তা বলেন, মেট্রোরেল বিদ্যুতে চলবে। এর প্রভাবে পরিবেশে কোনো ধরনের বিরূপ প্রভাব পড়বে না।

মেট্রোরেল যখন চলাচল করবে তখন রাজধানীতে ক্রমান্বয়ে ছোট ছোট গাড়ি কমে যাবে। এতে জীবাশ্ম জ্বালানি পোড়ানোর কারণে আমাদের যে পরিবেশ দূষণ হচ্ছিল, তা থেকে পরিত্রাণ পাব।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image