• ঢাকা
  • সোমবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ১৫ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

জননিপীড়নের এই অবৈধ সরকার প্রতিনিয়ত মুনাফেকি করে চলেছে : গণফোরাম


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ০৬ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৬:২৪ পিএম
জননিপীড়নের এই অবৈধ সরকার
বক্তব্য রাখছেন গণফোরাম সভাপতি জননেতা মোস্তফা মোহসীন মন্টু

নিউজ ডেস্ক : গণফোরাম সভাপতি জননেতা মোস্তফা মোহসীন মন্টু কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির বর্ধিত সভায় বলেন- জননিপীড়নের এই অবৈধ সরকার জনগণের নিকট প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রতিনিয়ত মুনাফেকি করে চলেছে।

সপ্তাহখানেক আগে সরকার প্রধান তার বক্তব্যে বললেন পেট্রোল আর অকটেন আমাদের কিনতে হয় না, তাহলে গভীর রাতে আচমকা দাম বাড়ালেন কেন? রাতের ভোটে নির্বাচিত সরকার কোন ঘোষনা ছাড়াই জনগণকে কষ্ট দিতে মধ্য রাতে ডিজেল, কেরসিন, অকটেন ও পেট্রোলের দাম বাড়িয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

দুঃখের বিষয় মসনদে বসে জনতাকে শোষন করা সরকারের কানে কিছুই পৌঁছায় না। অবিলম্বে ডিজেল, কেরসিন, অকটেন ও পেট্রোলের দাম পূর্বের মূল্যে আনতে হবে, নইলে জনতার উপর সবকিছুর মূল্য বৃদ্ধি করে অসহনীয় চাপ দেওয়ার জন্য, জনতাই আপনাকে পদত্যাগ করতে বাধ্য করবে। উৎপাদনশীল খাত ধ্বংস করাই এই দুঃশাসনের সরকারের লক্ষ্য।

সারের মূল্য বৃদ্ধি করে কৃষকের উৎপাদন ব্যয় বাড়িয়ে দিচ্ছে, যার ফলে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পেয়ে জনভোগান্তি আরও বাড়ছে। দেশের গভীর সংকট উত্তরণে একমাত্র সমাধান আওয়ামী লীগ সরকারের পদত্যাগের মাধ্যমে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহনযোগ্য নির্বাচনে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করা।

দেশের চলমান গভীর সংকট উত্তরণে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষ্যে অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধীনে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের বিকল্প নেই শীর্ষক আলোচনা এবং গণফোরাম তৃণমূলকে সংগঠিত করার লক্ষ্যে আজ ৬ই আগষ্ট শনিবার-২০২২ সকাল ১০টায় গণফোরাম কেন্দ্রীয় কার্যালয় (ইডেন কমপ্লেক্স ২/১-এ আরামবাগ, মতিঝিল ইনার সার্কুলার রোড, ঢাকা-১০০০)-এ গণফোরাম কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় নেতৃবৃন্দ সিদ্ধান্ত নেন জ্বালানি তেল ও সারের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে আগামী ১০ই আগস্ট সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ, মিছিল ও সকল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্মারক লিপি প্রদান করবে গণফোরাম।

কেন্দ্রীয় ভাবে জাতীয় প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে সকাল ১১টায় বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।

গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ বলেন- দলীয় সরকারের অধীনে কোন বৈধ নির্বাচন হওয়ার সম্ভবনা নেই আর অবৈধ নির্বাচনে আমরা অংশগ্রহণ করব না। অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধীনে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে আমাদের আন্দোলন চলবে। পাশাপাশি জনগণের যে সমস্যা-সংকট আছে সেগুলোকে নিরসন করার লক্ষ্যে জনগণকে সম্পৃক্ত করার জন্য যে গণআকাঙ্ক্ষা রয়েছে বিশেষ করে ভোটাধিকার পুনরুদ্ধার সহ সকল জনদাবী নিয়ে এই কর্তৃত্ববাদী সরকারের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন গড়ে তুলব।

গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী বলেন- জনগণকে শোষন করতে এই ফ্যাসিস্ট সরকার এতই পারদর্শী হয়ে উঠেছে যে ব্রিটিশ বেনিয়া ও পাকিস্তানি হানাদারদেরও হার মানিয়েছে। বিদেশীরাও আমাদের উপর এত কর চাপিয়ে দেওয়ার সাহস পায়নি যা এই অবৈধ সরকার চাপাচ্ছে। কি আশ্চর্য! কোন ঘোষনা ছাড়াই পেট্রোল, ডিজেল, কেরোসিন ও অকটেনের দাম বাড়িয়ে দিলো। এটাকি রাজতন্ত্র? রাজা ঘোষনা করে দিল আর দাম বেড়ে গেল। আমাদের জনগণের টাকা তছরুপ করে আরও লুটপাটের জন্য খেয়াল খুশি মতো দাম বাড়াচ্ছে। সহ্য আর ধৈর্যের সকল সীমা জনতা অতিক্রম করেছে। এক মুহুর্তও অবৈধ সরকারকে জনগণ ক্ষমতায় দেখতে চায় না কারণ তারা জানে সকল সমস্যার কেন্দ্রবিন্দু অবৈধ উপায়ে ক্ষমতা দখল করা আওয়ামী লীগ সরকার।

বর্ধিত সভা পরিচালনা করেন গণফোরাম সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক।

আরও বক্তব্য রাখেন গণফোরাম নির্বাহী সভাপতি মহসীন রশিদ, মহিউদ্দিন আবদুল কাদের, সভাপতি পরিষদ সদস্য এডভোকেট ফজলুল হক সরকার, শ্রী রতন ব্যানার্জী, আব্দুল হাসিব চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা খান সিদ্দিকুর রহমান, এডভোকেট হাফিজ উদ্দিন, ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ রওশন ইয়াজদানী, খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আলীনূর খান বাবুল, রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন, রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা হাসান, ময়মনসিংহ বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট এ.কে.এম. রায়হান উদ্দিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এডভোকেট মাহবুবুল ইসলাম, তথ্য ও গণমাধ্যম সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ মধু, সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক আব্দুল হামিদ মিয়া, আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক এডভোকেট বিশ^জীৎ গাঙ্গুলী, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক তাজুল ইসলাম, কৃষি সম্পাদক আব্দুল আউয়াল, মহিলা সম্পাদক নিলুফার ইয়াসমিন শাপলা, জলবায়ু ও পরিবেশ সম্পাদক শ্রী রনজিৎ সিকদার, ছাত্র সম্পাদক মোঃ সানজিদ রহমান শুভ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও মাগুড়া জেলা আহবায়ক অহিদুল হক, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও কুমিল্লা জেলা যুগ্ম আহবায়ক আবদুস সাত্তার পাঠান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিবুর রহমান বুলু, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের আহবায়ক এম. এ. মার্শাল কাদের, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঠাকুরগাঁও জেলার সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও রাজশাহী মহানগরের সদস্য সচিব এম. আর. মামুন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও শেরপুর জেলা আহবায়ক আজহার আলী ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও গাইবান্ধা জেলা সাধারণ সম্পাদক মুস্তাফিজুর রহমান বাবলু।
আরও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন জেলা প্রতিনিধি।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image