• ঢাকা
  • রবিবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ২২ মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

ভাই নওয়াজকে দেশে ফেরাতে ব্যস্ত শাহবাজ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১২:২৮ পিএম
নওয়াজকে দেশে ফেরাতে ব্যস্ত শাহবাজ
নওয়াজ ও শাহবাজ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে দেশে ফেরাতে তৎপর শাহবাজ শরিফ।

পাকিস্তানি গণমাধ্যমগুলো জানায়, পাকিস্তান মুসলিম লিগ (নওয়াজ) প্রধানের কূটনৈতিক ভিসার ব্যবস্থা করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এ ভিসা ইস্যু করার ব্যাপারে তাকে ব্রিফও করেছেন কূটনৈতিক শাখার অফিসাররা।

নওয়াজ ঈদের পরই পাকিস্তান ফিরতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বর্তমানে তিনি আছেন লন্ডনে।

কূটনৈতিক কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সেখানকার পাকিস্তানি মিশনকে নির্দেশ পাঠানো হয়েছে, নওয়াজ ও সাবেক পাক অর্থমন্ত্রী ঈশাক দারকে কূটনৈতিক ভিসা ইস্যু করতে হবে। যদিও শুধু নওয়াজকেই কূটনৈতিক ভিসা দেওয়া যাবে, ঈশাক দারকে নয়। তাই ঈশাককে সাধারণ পাকিস্তানি পাসপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

পিটিআই সরকার গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে নওয়াজের পাসপোর্ট নবায়ন করতে রাজি হয়নি। যদিও তখনকার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ জানিয়েছিলেন, নওয়াজ দেশে ফিরতে চাইলে বিশেষ সার্টিফিকেটের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

পানামা পেপার্স মামলায় ২০১৭ সালে পাকিস্তানি সুপ্রিম কোর্টের রায়ে গদি চলে যায় নওয়াজের। তারপরই তার বিরুদ্ধে কয়েকটি দুর্নীতি মামলার তদন্ত শুরু করে ইমরান সরকার। ২০১৮ সালে অ্যাকাউন্টেবিলিটি কোর্ট আল-আজিজিয়া স্টিল মিল দুর্নীতি মামলায় নওয়াজকে সাত বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। পাশাপাশি অ্যাভেনফিল্ড সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলায়ও সব মিলিয়ে মোট ১১ বছরের কারাদণ্ড হয় তার। এ ছাড়া ৮ মিলিয়ন পাউন্ড জরিমানাও করা হয়।

২০১৯ সালের অক্টোবরে শারীরিক অসুস্থতার কারণে ৮ সপ্তাহের জামিন পান নওয়াজ। এক মাস পর চার সপ্তাহের জন্য বিদেশে চিকিৎসা করাতে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয় তাকে। চিকিৎসার জন্য লন্ডনে গিয়ে সেখান থেকে তিনি আর একবারও ফেরেননি।

ইমরান বারবার তার বিদেশে চিকিৎসা করতে যাওয়ার সমালোচনা করে বলেছিলেন, নওয়াজকে বিদেশ যেতে দেওয়াটাই তার সরকারের বড় ভুল ছিল।

এখন পাকিস্তানে রাজনীতিতে রদবদল ঘটেছে। ক্ষমতার আসনে আসীন হয়েছেন নওয়াজেরই ভাই। দলের এক শীর্ষ নেতার দাবি, উনি দেশে ফিরে আইনের মুখোমুখি হবেন। তার প্রতি বিশেষ খাতির বা নির্মম ব্যবহার কোনোটাই হবে না বলে আমাদের প্রত্যাশা।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

আর্ন্তজাতিক বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image