• ঢাকা
  • সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

সংবাদ প্রকাশের পর: সেই লাইফ কেয়ার হসপিটাল সিলগালা 


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১১:৩০ এএম
লাইফ কেয়ার হসপিটাল সিলগালা 
লাইফ কেয়ার হসপিটাল সিলগালা 

মহিনুল ইসলাম সুজন, নীলফামারী প্রতিনিধি: ভুল চিকিৎসা ও অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যু সহ বিভিন্ন অনিয়মের সংবাদ প্রকাশের পর নীলফামারীর ডিমলায় নাম সর্বস্ব সেই লাইফ কেয়ার হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারটিকে সিলগালা করে দিয়েছে প্রশাসন।একই সময় নাম সর্বস্ব প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজার তাইজুল ইসলাম(৪০) কে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে ওই হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালিয়ে নিবন্ধন সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না পেয়ে ও বিভিন্ন অনিয়ম দেখতে পেয়ে প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজারকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে তা সিলগালা করে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট বেলায়েত হোসেন।যৌথ মালিকানার অবৈধ প্রতিষ্ঠানটির অধিকাংশ মালিক সরকারি চাকরিজীবী হওয়ায় তারা কেউ এ সময়ে সেখানে উপস্থিত ছিলেন না।সিলগালার আগে সেখানকার চিকিৎসাধীন রোগীদের অ্যাম্বুলেন্স যোগে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্থানান্তর করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.রাশেদুজ্জামান,স্যানেটারি ইন্সপেক্টর ওয়াহেদুল ইসলাম,ডিমলা থানা পুলিশ।এর আগে গত বুধবার বিকেলে উপজেলার টেপাখড়িবাড়ি ইউনিয়নের দক্ষিণ খড়িবাড়ি মসজিদ পাড়ার বাসিন্দা আতাউর রহমানের স্ত্রী ও দুই কন্যা সন্তানের জননী রহিমা বেগম(৩০)উপজেলা সদরের আলম প্লাজা মার্কেটের পিছনে অবস্থিত নাম সর্বস্ব অবৈধ লাইফ কেয়ার হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সিজার করতে এসে সেখানে ভর্তি হন।পরে বিকেল পাঁচটায় দিকে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের ডাকে চুক্তিবদ্ধ চিকিৎসক নন বিসিএস এম.বি.বি.ডা.আকতারুজ্জামান বাবু সেখানে হাজির হওয়া মাত্রই অভিভাবকের অনুমতি ছাড়াই প্রসূতিকে জোর পূর্বক অপারেশন রুমে নিয়ে যাওয়া হয় সিজারের জন্য।

প্রসূতি তার স্বামী ক্লিনিকের বাইরে আছেন বলে তাকে ফোনে ডেকে আনতে চাইলেও ওই চিকিৎসক ও ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তাতে কোনো কর্ণপাত না করেই প্রসূতিকে অপারেশন রুমে নিয়ে গিয়ে তার সিজার সম্পন্ন করেন।সিজারের পর নবজাতক শিশুটির নাক ও মুখ দিয়ে ফেনার মত পানি বের হতে থাকলে শিশুটির মারাত্মক শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়।

এসময় ওই ক্লিনিকের রেজিস্টার খাতায় চিকিৎসকের স্বাক্ষরের স্থানে নিজ স্ত্রী নন বিসিএস-এমবিবিএস চিকিৎসক ডা.মারজিয়া শবনমের নামে স্বাক্ষর করে ডা.আকতারুজ্জামান বাবু দ্রুত ঝটকে পড়েন।শিশুটির শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়ার দীর্ঘ আধা ঘন্টারও বেশি সময় ধরে শিশুটিকে কোনো রকম অক্সিজেন না দিয়ে ও চিকিৎসক না দেখিয়ে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ দীর্ঘ সময় কালক্ষেপন করে অক্সিজেন ছাড়াই ডিমলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।অতিতেও এই ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসা ও কর্তৃপক্ষের অবহেলায় একাধিক প্রসূতি ও নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছিলো।এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে বিষয়টি নজরে আসে প্রশাসনের।

ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও)বেলায়েত হোসেন বলেন,গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ নজরে এলে লাইফ কেয়ার হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারটিতে গেলে তারা কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেননি।একটি ক্লিনিক পরিচালনার জন্য ন্যূনতম যা-যা প্রয়োজন তার কিছুই না থাকায় ম্যানেজারকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে অবৈধ প্রতিষ্ঠানটিকে সিলগালা করে দেয়া হয়েছে।উপজেলার অন্যান্য প্রতিষ্ঠান(ক্লিনিক)গুলো এখান থেকে শিক্ষা না নিলে পর্যায়ক্রমে অভিযান চালিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।মানুষের জীবন নিয়ে কাওকে খেলতে দেয়া হবেনা।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

সারাদেশ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image