• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৮ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

আফগানিস্তানকে হারিয়ে সুপার ফোর নিশ্চিত করল বাংলাদেশ


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: সোমবার, ০৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৮:০৭ এএম
বাংলাদেশ
উইকেট শিকারের পর বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের উল্লাস

সুমন দত্ত: এশিয়াকাপে বি গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানিস্তানকে ৮৯ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। সোমবার লাহোরে  অনুষ্ঠিত ম্যাচে টস জিতে বাংলাদেশ ব্যাটিং এর সিদ্ধান্ত নেয়। শান্ত মিরাজের জোড়া সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ ৫ উইকেটে করে ৩৩৪ রান। বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ১ উইকেট হারায় আফগানিস্তান। এরপর থেকে রান চাপে পড়ে কোণঠাসা হয় আফগানরা। শেষ পর্যন্ত ৪৪.৩ ওভারে ২৪৫ রানেই আটকে যায় রশিদ খানদের ইনিংস। এর মধ্য দিয়ে ৮৯ রানের জয় পেয়ে এশিয়া কাপের সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে।

বাংলাদেশের ব্যাটিং এর সময় মহম্মদ নাইম আউট হোন মুজিবুর রহমানের স্পিন বলে। তবে তার আগে ২৮ রান করে যান এই ওপেনার। এরপর নবাগত তৌহিদুল হাসান হৃদয় নামেন। তবে তিনি বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি। মাত্র ২ বল মোকাবিলা করে রানের খাতা না খুলেই বিদায় নেন। এরপর আর কোনো উইকেট পড়েনি বাংলাদেশের।

শান্ত ও মিরাজের জুটি দলকে একটি সুন্দর লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। এ পর্যন্ত ১৯৪ রানের পাটনারশিপ করেছে এই দুই ব্যাটসম্যান। শান্ত ১০৪ রান করেন।  মিরাজ ১১২ রানে অপরাজিত । খেলায় গড়িয়েছে ৩০ তম ওভারে।  মিরাজের আঙুলের মাংস পেশিতে টান পড়ায় তিনি খেলা থেকে বিরতি নেন। এটি ছিল শান্তর দ্বিতীয় শতক একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচে।

বড় লক্ষ্য সামনে রেখে আফগানিস্তানের হয়ে ওপেনিং করেন রহমানুল্লাহ গুরবাজ ও ইব্রাহীম জাদরান। শরীফুল ইসলামের করা দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলেই লেগ বিফোরের ফাঁদে পা দেন গুরবাজ। তবে আম্পায়ার তখন আঙ্গুল তোলেননি এবং টাইগার অধিনায়কও দ্বিধায় ছিলেন ডিআরএস নেয়ার জন্য।

এর দুই বল পরই ফের লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে আউট হন গুরবাজ। রিভিউ নিয়েও তিনি উইকেটে টিকে থাকতে পারেননি। শুরুতেই একটি উইকেট হারিয়ে ইব্রাহীমের সঙ্গে শক্ত জুটি গড়েন রহমত শাহ। রানে গতি দিতে না পারলেও তিনি উইকেট পতন ঠেকান। দুই ব্যাটার ধীর গতিতে দলকে এগিয়ে নিতে থাকে। টাইগার বোলারদের একের পর এক আক্রমণেও কোনো ফলাফল আসছিলো না।

তবে ১৮তম ওভারে ব্রেকথ্রু এনে দেন তাসকিন আহমেদ। তার দ্রুত গতির বলে বোল্ডের শিকার হয়ে সাজঘরের পথ ধরেন রহমত। এরপর অধিনায়ক হাশমতউল্লাহ শাহিদীকে সঙ্গী করে দলকে জয়ের পথে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন ইব্রাহীম। সেই চেষ্টায় অনেকটাই সফল ছিলেন তিনি। ২৭.৩ ওভার পর্যন্ত তিনি দলের জন্য লড়াই করেন। তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের বলে ইব্রাহীম ৭৫ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরে যান।

 

ঢাকানিউজ২৪.কম / এসডি

আরো পড়ুন

banner image
banner image