• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ; ১৮ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image
website logo

নিজেদের রেকর্ড ভেঙ্গে জয় পেল পাকিস্তান


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: বুধবার, ১১ অক্টোবর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ০৬:৫১ এএম
ক্রিকেট
ব্যাট করছে পাকিস্তানের দুই ব্যাটার রিজওয়ান ও শফিক

নিউজ ডেস্ক: শ্রীলঙ্কা পাকিস্তানের সঙ্গে লড়াই করা সত্ত্বেও, মোহাম্মদ রিজওয়ানের ক্যারিয়ার-সেরা ইনিংস এবং ওপেনার আবদুল্লাহ শফিকের ক্যারিয়ার-প্রথম সেঞ্চুরির বদৌলতে পরাজয়ের স্বাদ নিতে হয় শ্রীলঙ্কাকে।  কুসল মেন্ডিস এবং সাদিরা সামারাউইকারমার সেঞ্চুরি ব্যর্থতায় ডুবে যায়। ২০২৩ সালের আইসিসি বিশ্বকাপের বড় রান তাড়া করার ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ছয় উইকেটে পরাজিত করে পাকিস্তান। এটা পাকিস্তানের টানা দ্বিতীয় জয়।

 বিশ্বকাপে রান তাড়া করতে গিয়ে এটাই সবচেয়ে বড় জয় পাকিস্তানের। শ্রীলঙ্কার ৩৪৫ রানের টার্গেট তাড়া করতে গিয়ে পাকিস্তানের দুই ক্রিকেটার একজন রিজওয়ান ১২১ বলে অপরাজিত ১৩১ রান করে। আর  শফিক ১১৩ রান করে  যার মধ্যে ১০ চার, ৩ ছক্কা ছিল । শফিকের প্রথম সেঞ্চুরি ছিল এটি। দুজনে মিলে ১৭৬ রানের পার্টনারশিপ করেন।  পাকিস্তান  ৪৮.২ ওভারে চার উইকেটে ৩৪৫ রান করে জিতেছে। এছাড়া চতুর্থ উইকেটে সৌদ শাকিলের ৩১ সঙ্গে ৯৫ রানের জুটিও গড়েন রিজওয়ান। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের হয়ে অভিষেকের সময় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও হন শফিক।

এর আগে, পাকিস্তান  ১৯৯২ বিশ্বকাপে লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে ২৬৩ রান করেছিল। সেটিই ছিল তাদের আগের রেকর্ড। সেবার তারা  বিশ্বকাপ জিতেছিলেন। এমতাবস্থায় শ্রীলঙ্কা ৩৪৫ রানের টার্গেট দিলে পাকিস্তান সমর্থকদের গলা শুকিয়ে গেলেও বিশাল স্কোর তাড়া করে ইতিহাস সৃষ্টি করেন আব্দুল্লাহ শফিক ও রিজওয়ান। সেই সঙ্গে শেবাগের ভবিষ্যদ্বাণীও ভুল হয়ে গেল।

আসলে, ৩৪৪ রানের বিশাল স্কোর দেখে বীরেন্দ্র শেবাগ তার নিজস্ব স্টাইলে পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানরা মাঠে নামার আগেই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেন। শেবাগ টুইট করেছেন, "কুশল পাকিস্তানের জন্য কোনো কসরত রাখেননি।" মানে, পাহাড়ের মতো স্কোর দেখে ভিরু পরোক্ষভাবে বলেছিলেন যে ম্যাচে এখন পাকিস্তানের জন্য কিছুই বাকি নেই, তবে শফিক এবং আবদুল্লাহ একসাথে শেবাগকে ভুল প্রমাণ করেছেন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / এসডি

আরো পড়ুন

banner image
banner image