• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ১৬ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

গমের বদলে চালের রুটি খাওয়ার আহ্বান : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: রবিবার, ৩১ জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৫:৫৭ পিএম
চালের রুটি খাওয়ার আহ্বান
ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান

নিউজ ডেস্ক :  ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেন, সবদিক থেকে খরচ কমিয়ে আনার চেষ্টা করছে সরকার। এ লক্ষ্যে আমদানি খরচ কমিয়ে আনতে গমের রুটির বদলে চালের রুটি খাওয়ার পরামর্শ।

রোববার (৩১ জুলাই) সকালে রাজধানীর নিউ ইস্কাটনে বিয়াম ভবনের মাল্টিপারপাস হলে ‘ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতা বৃদ্ধিকরণ’ প্রকল্পের অধীন দুটি পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের কর্মপরিকল্পনাবিষয়ক ওয়ার্কশপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয়ের উদ্দেশ্যে এ পরামর্শ দেন।
 
তিনি বলেন, ‘খাব না, গমের আটার রুটি খাব না। তাহলে আমার গম ইমপোর্ট করতে হবে না। আমার ফরেন কারেন্সি যেটা আছে, সেটায় শর্ট পড়বে না। আমার ডলার শর্ট পড়বে না। আমরা সবাই যেন গমের আটার রুটি খাওয়ার জন্য অস্থির হয়ে গেছি। আমরা তিন মাস গমের রুটি না খাই। দেখি না কী হয়? আমরা চালের আটার রুটি খাব। অসুবিধা কোথায়?’
 
দ্রব্যমূল্যের দাম অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে সামান্য বেড়েছে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সবাই বলে জিনিসের দাম বেড়েছে। সবাই বলে এটা হয়েছে, সেটা হয়েছে। জিনিসের দাম কতটুকু বেড়েছে, বাংলাদেশের মানুষ বুঝতে পারছে না। এখানে সামান্য বেড়েছে, তাতেই মানুষের মনে অশান্তির সৃষ্টি হয়েছে। এই যে ভোজ্যতেল, সেটি আসে কোত্থেকে? সব আসে ইউক্রেন-রাশিয়া থেকে। আজ ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ হওয়ার কারণে সারা বিশ্বে ধস নেমেছে। এমনও দেশ আছে, এক কেজি চালের দাম ৫০০ টাকা। অথচ বাংলাদেশের মানুষ এখনো স্বল্পমূল্যে সব খাচ্ছে।’
 
প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে পেট্রলের দাম ৯০ টাকা। লন্ডনে গিয়ে দেখি, পেট্রলের দাম এক পাউন্ড ছিল। এক পাউন্ডের দাম হলো ১১০ টাকা। সেখানে এখন পেট্রলের দাম ৩.৫৩ পাউন্ড। এর মানে হচ্ছে, লন্ডনে ৩৭০-৩৮০ টাকা এক লিটার পেট্রলের দাম। আর আমাদের এখানে সরকার দিচ্ছে ৯০ টাকায়। অথচ মানুষ বুঝতে পারে না কিছু।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুতের একটু ঘাটতি হয়েছে। কেন হয়েছে, সেটি দেশ ও জাতিকে বুঝতে হবে। বিদ্যুৎ তৈরি করতে দরকার হয় গ্যাস ও তেলের। দুটিই ইউক্রেন-রাশিয়া থেকে আমদানি করতে হয়। সেখান থেকে এখন এগুলো আনতে গেলে বিদ্যুতের দাম তিন-চার গুণ বেড়ে যায়। অন্য দেশ থেকে এনে বিদ্যুতে দ্বিগুণ ভর্তুকি দিচ্ছে। সরকারের আয়ের টাকা ভর্তুকি দিতেই শেষ। তবে আগামী তিন মাসের মধ্যে এসব অনেকাংশ সমস্যারই সমাধান হবে। ইতোমধ্যে রাশিয়া গ্যাস ও ভোজ্যতেল দেয়ার জন্য রাজি হয়েছে।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

রাজনীতি বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image
banner image