• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • সরকারি নিবন্ধন নং ৬৮

Advertise your products here

banner image

কেরানীগঞ্জে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ২টি ট্রাক জব্দ উদ্ধার, গ্রেফতার-১২


ঢাকানিউজ২৪.কম ; প্রকাশিত: শনিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৩:৩৫ পিএম
ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত ২টি ট্রাক জব্দ উদ্ধার
ডাকাত দলের ১২ সদস্যকে গ্রেফতার

মো. এরশাদ হোসেন, কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধিঃ দিনে রিকশা চালক, রাতে ডাকাত! তাদের টার্গেট থাকত কোথায় কোথায় নির্মানাধীন নতুন বিল্ডিং এর কাজ চলছে। রাত হলে তাদের টার্গেট অনুযায়ী নির্মানাধীন বিল্ডিং এর সিকিউরিটির হাত পা বেধেঁ জিম্মি করে রড চুরি বা ডাকাতি করত তারা। তিনটি ডাকাতি মামলার রহস্য উঃঘটনা করতে মাঠে নামে পুলিশের একটি চৌকস টিম। তাদের একটি সংঙ্গবদ্ধ ডাকাত দলের ১২ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা জেলার দক্ষিন কেরানীগঞ্জ ও কেরানীগঞ্জ মডেল থানার পুলিশের এক চৌকস টিম। যার নেতৃত্ব দিয়েছেন কোরানীগঞ্জ সার্কেল এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাব উদ্দীন কবির।

শুক্রবার সকাল ১১ টায় ঢাকা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  (ক্রাইম এন্ড অপারেশন্স) আমিনুল ইসলাম এক প্রেস ব্রিফিং মাধ্যমে সাংবাদিকদের এ তথ্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন, গত ০৪ আগষ্ট ২০২২ ইং তারিখ রাতে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ বসুন্ধরা রিভার ভিউ এলাকায় এস এম অছিউর রহমান (৫২) এর নির্মাসাধীন ভবনে ১০/১২ ডাকাত কেয়ারটেকার মাহবুব ও রড মেস্ত্রী গাজিউর রহমানের হাত পা বাধিয়া সাড়ে ৩ টন রড ট্রাকে তুলিয়া ডাকাতি করিয়া নিয়ে যায় যার বাজার মূল্য ৩ লক্ষ ১১ হাজার পাচশত টাকা। একই চক্রটি দক্ষিন কেরানীগঞ্জে ২০ আগষ্ট ২২ ইং সাইফুল ইসলামের নির্মানাধীন ভবনের অভিনব কায়দায় সিকিউরিটির হাত পা বেধে ৫ টন রড ডাকাতি করে নিয়ে যায় যার মূল্য ৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা। এছাড়া কেরানীগঞ্জের মডেল থানার মধু সিটি-১ এলাকা থেকে ডাঃ মোঃ আব্দুল মতিনের  নির্মানাধীন ভবনের কেয়ারটেকারকে অভিনব কায়দায় ৬ টন রড ডাকাতি করে যার মূল্য ৫ লক্ষ ৩৩ হাজার টাকা । 

এ বিষয় সংশ্লিষ্ট থানায় রড ডাকাতির তিনটি মামলা হয়। ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার এ তিনটি মামলা তদন্তর নির্দেশদেন কেরানীগঞ্জ সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার ওসী শাহজামান ও মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ এর সমন্বয়ে একটি চৌকস টিম সংঙ্গবদ্ধ ডাকাতদের ধরতে কাজ শুরু করি। তথ্য প্রযুক্তির সহযোগিতায় ডাকাত দলনেতা মফিজ (৪৫)কে দক্ষিন কেরানীগঞ্জের চুনকুটিয়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

মফিজ এর দেয়া তথ্য মতে এই ডাকাতির সাথে জড়িত আরো দৃ’জন রাসেল ও ইমন কে গ্রেফতার করা হয় এবং তাদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় ডাকাতির কাজে মালামাল বহনকারী ট্রাক নিয়ে চালক ডালিম ও ইসমাইল বেগুনবাড়ি এলাকায় অবস্থান করছে এসময় তাদের দুজনকে গ্রেফতার ও ট্রাক জব্দ করা হয়। রাসেল ও ইমন জিজ্ঞাসা বাদে লুন্ঠিত রড তারা আল আামিন ও সাব্বিরের নিকট বিক্রয় করেছে। পরে আলামিন ও সাব্বির কে গ্রেফতার করে। লুন্ঠিত কয়েক টন রড পুলিশ উদ্ধার করেছে।

ডাকাত মফিজকে নিয়ে অপর এক অভিযানে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত অপর দুজন ডাকাত আলামিন ও বিল্লালকে ডাকাতির কাজে জড়িত ট্রকসহ  নারায়নগঞ্জ ও খিলগাঁও এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। ডাকাত সরদার মফিজ এর তথ্য মতে তার সহযোগী ফালান, সুমন ও রানা কে গ্রেফতার করা হয়। 

তিনি আরও বলেন, এ সংঙ্গবদ্ধ চক্রটি একটি নেটওয়ার্ক তৈরি করেছিল। এ চক্রটি গ্রেফতারে দুটি থানার ৩ টি মামলার রহস্য উৎঘটন করতে সক্ষম হয়েছি। এছাড়া উক্ত ডাকাতদের বিরুদ্ধে ঢাকার মানিকগঞ্জ নারায়নগঞ্জ,সিরাজদীখান,মুন্সিগঞ্জসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন কেরানীগঞ্জ সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাব উদ্দিন কবির, দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শাহ জামান,কেরানীগঞ্জ মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মামুনুর রশিদ মামুন।

ঢাকানিউজ২৪.কম / কেএন

অপরাধ বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ

banner image